৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দার্জিলিং পুরসভায় নির্বাচন নয়, জানাল হাইকোর্ট

245

জলপাইগুড়ি, ২০ ফেব্রুয়ারি : রাজ্য সরকার চাইলেও দার্জিলিং পুরসভায় ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত কোনও নির্বাচন করতে পারবে না। বৃহষ্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চে বিচারপতি অমৃতা সিং দার্জিলিং পুরসভায় ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত নির্বাচন করা যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছেন। ২০১৭ সালে দার্জিলিং পুরসভার নির্বাচন হয়। কিন্তু পাহাড়ে ফের অশান্তি ছড়ালে পুরসভার বোর্ড ভেঙে দিয়ে সেখানে প্রশাসক বসিয়ে দেয় রাজ্য সরকার। রাজ্যে অন্যান্য পুরসভায় নির্বাচনের সঙ্গে দার্জিলিং পুরসভাতেও নির্বাচন চাইছিল রাজ্য। কিন্তু পুরসভার ১৫ জন কাউন্সিলার নির্বাচন না চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন। সেই মামলার শুনানির পর বিচারপতি জানান ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত কোনও নির্বাচন করা যাবে না।

২০১৭ সালের মে মাসে ৩২ আসনের দার্জিলিং পুরসভার নির্বাচন হয়। ৩১ টি আসনে জিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় বিমল গুরুংয়ের নেতৃত্বাধীন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন ডি কে প্রধান। ৮ জুন থেকে দার্জিলিংয়ে অশান্তির আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ১০৪ দিনের বনধ চলাকালীন পাহাড়ে অশান্তির ছড়ানোর দায়ে গ্রেপ্তার হন ডি কে প্রধান।  ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে বিনয় তামাংয়ের অনুগামী প্রতিভা রাই দার্জিলিংয়ের চেয়ারম্যান হন। পুরসভার সব কাউন্সিলরই তাঁকে সমর্থন জানান। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে দার্জিলিং আসনটি চার লক্ষ ভোটের বেশি ব্যবধানে জিতে নেয় বিজেপি। এরপর প্রতিভা রাইয়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা নিয়ে আসেন ১৭ জন কাউন্সিলর। দিল্লিতে গিয়ে তাঁরা সবাই বিজেপিতে যোগ দেন। এরপরই তড়িঘড়ি ২০১৯ সালের ১৮ জুন দার্জিলিং পুরসভা ভেঙে দিয়ে প্রশাসক বসায় রাজ্য সরকার। আইন অনুযায়ী ছ’‌মাস প্রশাসক থাকার পর নতুন করে নির্বাচন করতে পারে রাজ্য সরকার।

- Advertisement -