‘নো মাস্ক-নো সেল’, শিলবাড়িহাটে কড়া সিদ্ধান্ত ব্যবসায়ী সমিতির

306

সুভাষ বর্মন, পলাশবাড়ি: এবার ক্রেতাদের মুখে মাস্ক না থাকলে ব্যবসায়ীরা কোনও পণ্য বিক্রি করবেন না। সোমবার এমন কড়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের শিলবাড়িহাট ব্যবসায়ী সমিতি।

এজন্য স্থানীয় আড়াইশো দোকানে প্রায় ১০ হাজার সার্জিকাল মাস্ক মজুত রাখা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে জেলা পরিষদ। আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের সহকারি সভাধিপতি মনোরঞ্জন দে বলেন, ‘ব্যবসায়ীরা নিজে থেকেই এই উদ্যোগ নিয়েছে। এটা খুব ভালো দিক। সাধারণ ক্রেতাদেরও সচেতন হতে হবে। এজন্য ব্যবসায়ীদের সাধুবাদ জানাই।’

- Advertisement -

আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের শিলবাড়িহাটে প্রতি বুধ ও শনিবার হাট বসে। এছাড়াও প্রতিদিন সকাল ও সন্ধ্যায় বসে দিন বাজার। স্থায়ী দোকান রয়েছে আড়াইশো। লকডাউনের প্রথম দিকে এই হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের ভিড় উপচে পড়ে। এখন এই হাটের পরিস্থিতি অনেকটাই স্বাভাবিক। পুলিশ প্রশাসনের নজরদারিও সেরকম নেই।

অভিযোগ, ধীরে ধীরে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতেই এই হাটে মাস্ক ছাড়াই একাংশ মানুষ কেনাকাটা করছেন। সামাজিক দূরত্ব বিধিও শিকেয় উঠেছে। এই পরিস্থিতি দেখে কড়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যবসায়ী সমিতি। সোমবার প্রতিটি দোকানে ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে ক্রেতাদের জন্য মাস্ক বিলি করা হয়। আড়াইশো দোকানে সব মিলে প্রায় ১০ হাজার মাস্ক বিলি হয়। এছাড়াও প্রতি দোকানে ‘নো মাস্ক, নো সেল’ উল্লেখ করে পোস্টার লাগানো হয়।

শিলবাড়িহাট ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক গোবিন্দ বিশ্বাস বলেন, ‘কোনও দোকানে মাস্ক ছাড়া ক্রেতা আসলে ওই ব্যবসায়ী ক্রেতাকে মাস্ক দেবেন। তারপর দোকান ব্যবসায়ী পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। সাধারণ মানুষকে সচেতন করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য আড়াইশো দোকানে ১০ হাজার মাস্ক মজুত রাখা হয়েছে।’