মোদিকে কেউ চা বিক্রি করতে দেখেনি: মলয় ঘটক

255

বীরপাড়া: আলিপুরদুয়ার জেলার বীরপাড়ায় শ্রমিক মেলার উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে তুলোধোনা করলেন রাজ্যের শ্রমমন্ত্রী মলয় ঘটক। বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে শুরু করে রাজ্যের বিগত বাম সরকারের  ৩৪  বছরের কথা টেনে সমালোচনা করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কখনও তিনি চা ওয়ালা হিসেবে পরিচয় দিয়ে ভোট চাইছেন। কখনও আবার নিজেকে চৌকিদার হিসেবে পরিচয় দিচ্ছেন। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই  করছেন না। তাঁকে কেউ কোনোদিন চা বিক্রি করতে দেখেনি।‘

এদিন বাম আমলে চা বাগানের শ্রমিক ও অসংগঠিত শ্রমিকদের কথা কেউ ভাবেনি বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তিনি জানান, বুধবার কিংবা এর পরবর্তী মিটিংয়েই উত্তরবঙ্গের চা বাগানের শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওয়েস্ট বেঙ্গল কমিশন ফর প্রটেকশন অব চাইল্ড রাইটের সদস্য  ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়, ত্রাণ, উদ্বাস্তু ও পুনর্বাসন দপ্তরের উপদেষ্টা কমিটির রাজ্য চেয়ারম্যান মৃদুল গোস্বামী, মাদারিহাটের বিডিও শ্যারণ তামাং, আলিপুরদুয়ারের জয়েন্ট লেবার কমিশনার শ্যামল কুমার রায়চৌধুরী, বীরপাড়ার সহকারী শ্রম কমিশনার নীল ছেত্রী, জেলা পরিষদের  সহ-সভাপতি মনোরঞ্জন দে প্রমুখ।

- Advertisement -

এদিন বিভিন্ন চা বাগানের শ্রমিকরা তাদের পারিশ্রমিক বাড়ার কথা শোনার পর হাততালি দিয়ে ধন্যবাদ জানান মন্ত্রীকে। প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবারই বীরপাড়ায় চা বাগান তৃণমূল কংগ্রেস মজদুর ইউনিয়নের সভাপতি তথা আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের মেন্টর  মোহন শর্মা জানিয়েছিলেন, চা বাগানের শ্রমিকদের মজুরি বাড়তে চলেছে। শ্রমদপ্তর সূত্রের খবর, বর্তমানে চা বাগানের শ্রমিকরা প্রতিদিন ১৭৬ টাকা হিসেবে মজুরি পান। দীর্ঘদিন ধরে মজুরি বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে আসছেন তাঁরা। অসংগঠিত শ্রমিকদের মধ্যে যাদের ৬০বছর বয়স পূর্ণ হয়েছে তাদের বেশ কয়েকজনকে বুধবার আজীবন পেনশনের সার্টিফিকেট তুলে দেন মন্ত্রী।