সামাজিক দুরত্ব শিকেয়, থিকথিকে ভিড় টিকাকরণ কেন্দ্রে

60

রামপুরহাট: করোনা টিকা নেওয়ার লাইনে সামাজিক দুরত্ববিধি মানা হচ্ছে কি না তা রবিবার সরেজমিনে খতিয়ে দেখলেন মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক। তবে, তিনি চলে যাওয়ার পরই ফের বিধি নিষেধকে উপেক্ষা করে লাইন দিয়ে টিকা নিলেন রামপুরহাট পুরসভা এলাকার মানুষেরা।

শনিবার থেকে রামপুরহাট পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে করোনা টিকা দেওয়া শুরু করেছে। মানুষের টিকা নেওয়ার আগ্রহ থাকায় ছুটির দিন রবিবারেও করোনা টিকা দেওয়ার কাজ করছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। এদিন শহরের আটটি জায়গায় টিকা দেওয়া হয়েছে। টিকা নিতে এসে মানুষজন সামাজিক দুরত্ববিধি মানছেন কি না তা সরেজমিনে দেখতে বেরিয়ে পড়েন রামপুরহাট স্বাস্থ্য জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রবীন্দ্রনাথ প্রধান। তিনি বিভিন্ন টিকা প্রদান কেন্দ্রে গিয়ে মানুষকে সচেতন করেন তিনি।

- Advertisement -

রবীন্দ্রনাথবাবু বলেন, ‘আটটি কেন্দ্র থেকে টিকা দেওয়া হচ্ছে। তারমধ্যে দুটি কেন্দ্রে ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে মানুষদের দেওয়া হচ্ছে। এদিন দেড় হাজার মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। যারা চলাফেরা করতে পারেন না তাদের বাড়িতে গিয়ে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ভালো লাগছে এই কারণে যে এক সময় মানুষ টিকা নিতে চাইতেন না। এখন মানুষ আগ্রহ করে টিকা নিচ্ছেন।‘

রামপুরহাটের বাসিন্দা লক্ষ্মী রায়, সীমা মণ্ডলরা বলেন, ‘কেউ দুরত্ববিধি মানছেন না। মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক যতক্ষণ ছিলেন ততক্ষন ঠিক ছিল। উনি চলে যেতেই ফের অনিয়ম। কেউ কাউকে মানছেন না।‘