তেলেঙ্গাজোত উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে জল না থাকায় রোগীদের সমস্যা

279

কার্তিক দাস, খড়িবাড়ি : খড়িবাড়ি ব্লকের তেলেঙ্গাজোত উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে তিন বছর ধরে জলের কোনো ব্যবস্থা নেই। ফলে রোগী ও স্বাস্থ্যকর্মীরা চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। অভিযোগ, বহুবার খড়িবাড়ি ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তর ও বুড়াগঞ্জ গ্রাম পঞ্চায়েতে বিষয়টি জানিয়ে কোনো লাভ হয়নি।

খড়িবাড়ি ব্লকের ডুমুরিয়া এলাকায় ঘোষপুকুর-খড়িবাড়ি সড়কের পাশে তেলেঙ্গাজোত উপস্বাস্থ্যকেন্দ্র অবস্থিত। ২০০৭ সালে স্বাস্থ্য দপ্তর এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি তৈরি করে। বর্তমানে এই উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে দুজন নার্স ও পাঁচজন আশাকর্মী আছেন। এখানে প্রধানত প্রসূতি, পাঁচ বছর অবধি শিশু, যক্ষ্মা ও কুষ্ঠ রোগীদের পরিসেবা প্রদান করা হয়। প্রতিদিন বহু রোগী এই উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেন। পানীয় জল ও শৌচকর্মের জল না থাকায় তাঁরা দুর্ভোগের শিকার হন। জল না থাকায় অনেক রোগীই শৌচাগার ব্যবহার করতে পারেন না। উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রের নার্স শুভ্রা সিংহরায় ও সুচিত্রা ভট্টাচার‌্য জানান, সাধারণত প্রতি বুধবার শিশুদের টিকাকরণের দিন সবথেকে বেশি সমস্যা হয়। সেদিন রোগীর সংখ্যা অন্যান্য দিনের তুলনায় অনেকটাই বেশি থাকে। স্বাস্থ্যকর্মীরা জানান, সজলধারা প্রকল্পের মাধ্যমে উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রে জল সরবরাহ চালু হলেও চার বছর ধরে তা বন্ধ রয়েছে।

- Advertisement -

উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলির পরিকাঠামো উন্নয়নের দায়িত্ব স্বাস্থ্য দপ্তর ছাড়াও সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েগুলির ওপর বর্তায়। খড়িবাড়ি ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ প্রফুল্লিত মিনজ বলেন, প্রায় প্রতিমাসেই ব্লক প্রশাসনিক সভায় বিষয়টি তোলা হয়। বছরখানেক আগে বুড়াগঞ্জ গ্রাম পঞ্চায়েত জলের ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দেয়। সেজন্য স্বাস্থ্য দপ্তর এ ব্যাপারে কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। জলের ব্যবস্থা না হওয়ার বিষয়ে পঞ্চায়েতের সঙ্গে কথা বলব। পঞ্চায়েত প্রধান লক্ষ্মী সিংহ বলেন, গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে উপস্বাস্থ্যকেন্দ্রটির পরিকাঠামো উন্নয়ন, পানীয় জল সহ শৌচালয়ের জলের ব্যবস্থা করার সমস্ত উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ২০ তারিখ পঞ্চায়েতের সাধারণ সভায় এ বিষয়ে চূড়ান্ত আলোচনার পরই কাজ শুরু হবে।