নয়াদিল্লি, ২ জানুয়ারিঃ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্যের দ্বন্দ্বের মাঝেই ২৬ জানুয়ারির প্যারেড থেকে পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলো বাদ পড়ল। সাধারণতন্ত্র দিবসের দিল্লির রাজপথে যে কুচকাওয়াজ হয়, তাতে জায়গা পাচ্ছে না এই রাজ্যের ট্যাবলো। প্রতিরক্ষামন্ত্রকের যে কমিটি এই ট্যাবলো বাছাইয়ের কাজ করে, তারা রাজ্যের প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছে।

বেশ কয়েক বছর বন্ধ থাকার পর ফের ২৬ জানুয়ারির কুচকাওয়াজে ট্যাবলো পাঠানো শুরু করে রাজ্য সরকার। গত বছরও কুচকাওয়াজে বাংলার ট্যাবলো দেখা গিয়েছিল। সেরা ট্যাবলোর পুরস্কারও জিতেছে পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু এবার তা হচ্ছে না। প্রতিরক্ষামন্ত্রকের ওই কমিটি জানিয়েছে, রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি থেকে ৫৬টি প্রস্তাব গিয়েছিল ট্যাবলোর প্রদর্শনীর জন্য। এর মধ্যে ২২টি ট্যাবলোর প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। খারিজ হয়ে যাওয়া প্রস্তাবের মধ্যে রয়েছে বাংলাও। তবে প্রতিরক্ষামন্ত্রক সূত্রে খবর, কুচকাওয়াজে সময়ের জন্য সব রাজ্যের ট্যাবলোকে ঠাঁই দেওয়া কোনোবারেই সম্ভব হয় না। কোন রাজ্যের কী থিম, সেখানে কী প্রদর্শন করা হবে, সে সব খতিয়ে দেখেই চূড়ান্ত বাছাই করা হয়। তাই বাংলার বাদ পড়া স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। তবে অনেকেই বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এই বিষয়টিকে সাধারণ করে দেখতে নারাজ। তাঁদের মতে, সিএএ, এনপিআর নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কুচকাওয়াজের ট্যাবলো বাছাই প্রক্রিয়াতেও সেই কেন্দ্র-রাজ্য দ্বন্দ্বের আঁচ পড়তে পারে।