রাগবিতে সাফল্য এনেও ব্রাত্য বাগানের মেয়েরা

বেলাকোবা : চা বাগানের শ্রমিক পরিবারের মেয়েরা আন্তর্জাতিক স্তরে রাগবি খেলে খ্যাতি অর্জন করলেও চা বাগান মালিক ও রাজ্য সরকারের কাছে ব্রাত্য থেকে গিয়েছে বলে অভিযোগ উঠছে। রাজগঞ্জ ব্লকের সরস্বতীপুর চা বাগানের দুঃস্থ পরিবারের মেয়েরা দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে। অথচ তাদের চা বাগান কর্তৃপক্ষ বা রাজ্য সরকার কোনও তরফ থেকে কোনও সহযোগিতা, স্বীকৃতি আসেনি বলে অভিযোগ করেন রাজগঞ্জ উত্তর মণ্ডলের বিজেপির সহ সভাপতি তপন রায়, বাগানের তৃণমূল কংগ্রেস শ্রমিক সংগঠনের তরাই-ডুয়ার্স প্ল্যান্টেশন ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের ইউনিট সম্পাদক সুরেন ওরাওঁ, জাতীয় প্লেয়ার সঞ্জু ওরাওঁ, লছমি ওরাওঁ, বাগিচা ও রাজ্য মহিলা রাগবি কোচ রোশন খাঁখাঁ।

তপনবাবু বলেন, সরস্বতীপুর চা বাগানের মেয়েরা রাগবি খেলায় জাতীয় দলের হয়ে আন্তর্জাতিক প্রাইজ নিয়ে আসা সত্ত্বেও চা বাগিচা মালিক ও রাজ্য সরকারের কোনও স্বীকৃতি নেই। স্পোর্টস কোটায় একজনেরও চাকরি হয়নি। অথচ ওডিশা সরকার মহিলা রাগবি খেলোয়াড়দের স্পোর্টস কোটায় চাকরি দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। গজলডোবা হাইস্কুলের শারীরশিক্ষার শিক্ষক বরুণচন্দ্র রায় বলেন, এরা কেবল খেলায় নয়, পড়াতেও আগ্রহী। কিন্তু তারা প্রচারমাধ্যম থেকে বঞ্চিত। ব্যতিক্রম শুধু উত্তরবঙ্গ সংবাদ। কোচ রোশন খাঁখাঁ বলেন, স্থানীয় ক্রীড়াপ্রেমী সুকুমার রায় এই খেলোয়াড়দের সীমিত ক্ষমতার মধ্যেও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। সরস্বতীপুর চা বাগানের মালিক তথা জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি কৃষ্ণকুমার কল্যাণী জানান, তাঁর বাগানে মহিলা রাগবি খেলোয়াড়দের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করছেন। ক্লাবের জন্য জমি দেওয়া হয়েছে। কোচদের থাকার ব্যবস্থাও আছে। যদি তাঁরা চাকরির জন্য আবেদন করেন তাহলে রাজ্যের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে আবেদন করা হবে।

- Advertisement -