পুলিশকর্তার ইস্তফা ঘিরে শোরগোল, পরে প্রত্যাহার

106

জলপাইগুড়ি: ভোটের মুখে ইস্তফা পুলিশকর্তার। আর তা নিয়ে তুমুল শোরগোল শুরু হতেই ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে শেষ পর্যন্ত ইস্তফা প্রত্যাহারের মধ্যে দিয়ে নাটকের যবনিকা পতন হয়। ঘটনাস্থল জলপাইগুড়ি।

জলপাইগুড়ির সদর ডিএসপি সমীর পাল চাকুরি থেকে অব্যাহতি চেয়ে গত বৃহস্পতিবার জেলা পুলিশ সুপারের কাছে চিঠি দিয়েছিলেন। কিন্তু শনিবারই এনিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। মাত্রাতিরিক্ত কাজের চাপেই ওই পুলিশকর্তা ইস্তফা দিতে চেয়েছিলেন বলে জল্পনা শুরু হয়। উঠে আসে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে মতানৈক্যর তত্ত্বও। ভোটের মুখে এই ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়ে পুলিশমহল। পরে তড়িঘড়ি ওই পুলিশকর্তার স্ত্রী সহ পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে নিজের চেম্বারে দীর্ঘ আলোচনা করেন জেলা পুলিশ সুপার ডাঃ প্রদীপ কুমার যাদব।

- Advertisement -

পুলিশ সুপার নিজের চেম্বার থেকে বেরিয়ে এসে বলেন, ‘আমি পুলিশে অনেককেই পুরষ্কৃত করি। ভালো কাজ না করলে সমালোচনাও করে থাকি। কিন্তু সেটা পুলিশের অভ্যন্তরীণ বিষয়।’ যদিও পুলিশ সূত্রেই জানা গিয়েছে, পুলিশ সুপার ডিএসপি-র পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি। আগামী সোমবার থেকে সমীর পাল পুনরায় নিজের কাজে যোগ দেবেন। পরে ওই আধিকারিক সমীর পালও জানিয়েছেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সাময়িক মনোমালিন্য হয়েছিল ঠিকই। এখন তিনি পদত্যাগপত্র প্রত্যাহার করে নিচ্ছেন।