দু’বার উদ্বোধনেরপর জঙ্গলে মুখ ঢেকেছে ইলুয়াবাড়ি শিল্পতালুক

271

অরুণ ঝা, ইসলামপুর : শিলান্যাস একবার। কিন্তু উদ্বোধন দুবার। সরকারের কুমিরছানা ইসলামপুরের ইলুয়াবাড়ি শিল্পতালুক এখন জঙ্গলে ঢেকে গিয়েছে। গড়ে ওঠেনি একটি চায়ের দোকানও। অথচ বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় প্রশাসন বা রাজ্য সরকার উদাসীন। দুই সরকারের আমলেই ঘটা করে এই শিল্পতালুকের উদ্বোধন করা হয়েছে। অথচ একজন শিল্পপতিরও পা পড়েনি এখানে। এনিয়ে এলাকার উদ্যোগপতিদের মধ্যে ক্ষোভের অন্ত নেই। ইসলামপুর মহকুমা প্রশাসন সাফ জানিয়েছে, তাদের আপাতত কিছু করার নেই। শিল্পের আবেদন এলে অবশ্য প্রশাসন পদক্ষেপ করার আশ্বাস দিয়েছে।

২০০৮ সালে বাম সরকার ইলুয়াবাড়িতে তড়িঘড়ি প্রায় ২৫ একর জমি অধিগ্রহণ করে শিল্পতালুকের শিলান্যাস করে। তারপর কোনোরকমে সীমানাপ্রাচীর তুলে ২০১১ সালের বিধানসভা ভোটের আগে তত্কালীন মন্ত্রী মানব মুখোপাধ্যায় এসে শিল্পতালুকের উদ্বোধন করেন। তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর শিল্পতালুকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ে প্রিয় নীল-সাদা রং করা হয়। পরে মুখ্যমন্ত্রী রায়গঞ্জে এসে শিল্পতালুকের আবার উদ্বোধন করেন। বর্তমানে শিল্পতালুকের ওই জমি জঙ্গলে ছেয়ে গিয়েছে। প্রায় ১২ একর জমি রাস্তাঘাট ও পরিকাঠামো গড়ে তোলার জন্য রাখা হয়েছে। বাকি জমি শিল্পোদ্যোগীদের মধ্যে বণ্টন করার জন্য রাখা হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সরকার শিল্পতালুকে বিনিযোগের জন্য একজনও শিল্পপতিকে রাজি করাতে পারেনি। শিল্পপতিদের একাংশের বক্তব্য, শিল্প নিয়ে সরকার হইচই যতটা করে, কাজের কাজ ততটা হয় না। সরকারের চাপে প্রশাসন হঠাত্ করে দু-একদিন এনিয়ে তত্পরতা দেখালেও পরে সবই চাপা পড়ে য়ায়।

- Advertisement -

সাধারণ মানুষ বলছেন, পাঞ্জিপাড়া চর্মনগরীর মতো ইলুয়াবাড়ি শিল্পতালুক নিয়ে সরকারের সুষ্ঠু পরিকল্পনাই নেই। আদৌ ইলুয়াবাড়ি শিল্পতালুকে অদূর ভবিষ্যতে কোনো দিন শিল্প হবে কি না তা নিয়ে খোদ শিল্পপতিরাই সংশয় প্রকাশ করেছেন। বণিকসভার প্রতিনিধি দামোদর আগরওয়াল বলেন, শিল্পতালুক নিয়ে সরকারিস্তরে পরিকল্পনার অভাব রয়েছে। শিল্পস্থাপনে সরকারি প্রক্রিয়ার সরলীকরণ প্রয়োজন। প্রশাসনের বৈঠকের পর বৈঠকে আমরা রীতিমতো হতাশ। ইসলামপুরের মহকুমাশাসক অলংকৃতা পান্ডে বলেন, শিল্পতালুকের জমি সংক্রান্ত বিষয় আমাদের দপ্তরের এক্তিয়ারে পড়ে না। শিল্পপতিদের আবেদন এলে আমরা নিশ্চয় যথায়থ পদক্ষেপ করব। তাছাড়া জঙ্গল গজিয়ে ওঠা শিল্পতালুকে কি পরিকল্পনায় এগোনো সম্ভব তা নিয়ে আমরা যথায়থ ব্যবস্থা নেব।