স্লোগান নয়, রীতিমত মাঠে নেমে খেলে দেখালেন অশোক

166

ভাস্কর চক্রবর্তী, শিলিগুড়ি: দোরগোড়ায় বিধানসভা নির্বাচন। আর এবার ভোটে তৃণমূলের জনপ্রিয় স্লোগান ‘খেলা হবে’। কিন্তু যে যেই স্লোগান তুলুক না কেন, প্রকৃত অর্থেই মাঠে নেমে খেলে দেখালেন শিলিগুড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের সংযুক্ত মোর্চার সিপিআইএম প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্য। শনিবার সকালে নির্বাচনি প্রচারে বেরিয়ে শিলিগুড়ি কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে পৌঁছে যান অশোকবাবু। সেখানেই তখন ফুটবলের অনুশীলন চলছিল। মাঠে পৌঁছে আর থেমে থাকেননি এই বর্ষীয়ান সিপিআইএম নেতা। রীতিমতো বাঁ পায়ে গোলপোস্ট লক্ষ্য করে শট করেন তিনি। পাশাপাশি এদিন অনুশীলনকারী মহিলা খেলোয়াড়দের সঙ্গে আলাপচারিতাও সারেন অশোকবাবু।

খেলার জগতের সঙ্গে বরাবরই ঘনিষ্ঠ যোগায়োগ অশোকবাবুর। নিজে ইস্ট বেঙ্গলের সমর্থক। মন্ত্রী থাকাকালীন তার আহ্বানে বহু দিকপাল খেলোয়াড় শিলিগুড়িতে এসেছেন। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গেও তাঁর পারিবারিক যোগাযোগ।তাই সর্বক্ষণের রাজনীতিক হলেও নিজেকে ক্রীড়া জগত থেকে দূরে রাখেননি কখনওই। এদিনও কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে সেই প্রমাণই মিলল। এদিন বেশ ফুরফুরে মেজাজেই ছিলেন তিনি। বাঁ পায়ে গোল পোস্ট লক্ষ্য করে লং শট নিয়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। অশোকবাবু বলেন,  ‘আজ আমি সকলের সঙ্গে কথা বলতেই এসেছিলাম। এসে বল দেখে নিজেকে আটকে রাখতে পারিনি। তাই ওই বলে পা দিয়ে শট মারার চেষ্টা করি।’ এদিন অশোকবাবুকে নির্বাচনে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীদের প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, ‘কোনওকালেই আমি প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিষয়ে মন্তব্য করিনি। আর করবও না। যে দল যাকে যোগ্য মনে করবে তাঁকেই প্রার্থী করতে পারে। আমি মানুষের সাড়া পাচ্ছি। তাঁরা বদল চায়।’ উল্লেখ্য, শিলিগুড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের বিদায়ী বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য। এবার অশোকবাবুর বিরুদ্ধে বিজেপির ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন তারই এককালের ছায়াসঙ্গী সদ্য সিপিআইএম থেকে বিজেপিতে যোগদান করা শংকর ঘোষ। অপরদিকে, তৃণমূলের (শিলিগুড়ি) প্রার্থী ওমপ্রকাশ মিশ্র। প্রতিদিন সকালে বিকালে প্রচারে বেরোচ্ছেন অশোকবাবু। বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে দেখা করার পাশাপাশি বিভিন্ন বাজার এবং এলাকাতেও ঘুরে বেড়াচ্ছেন তিনি। শনিবার সকালটা অশোকবাবু কাটালেন খেলোয়াড়দের সঙ্গেই।

- Advertisement -