ইস্তফা দিতে ভয় পাই না, নয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং

228

চন্ডীগড়: কেন্দ্রের সংশোধিত কৃষি আইনের বিরুদ্ধে পঞ্জাব সরকার আজ মঙ্গলবার পঞ্জাব বিধানসভায় কৃষি বিলের খসড়া পেশ করে। এ প্রসঙ্গে এদিন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংহ বলেছেন, ‘আমি ইস্তফা দিতে ভয় পাই না’। এদিন পঞ্জাব বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংহ বলেন, ‘আমার সরকার বরখাস্তেরও ভয় পাই না। কিন্তু, কোনও ভাবেই আমি কৃষকদের ধ্বংস হতে দেব না।’

নয়া কৃষি আইন নিয়ে পঞ্জাব বিধানসভার বিশেষ অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনে আজ বিধানসভার দলনেতা কৃষি বিল উত্থাপন করেন। মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংহ কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে তিনটি বিল উত্থাপন করেন। পঞ্জাব সরকার কেন্দ্রের নয়া কৃষি আইনের পরিবর্তে যতটা সম্ভব রাজ্য কৃষি আইন রুপায়ণ ও প্রয়োগের চেষ্টা করছে।

- Advertisement -

এদিকে এদিনের বিধানসভা অধিবেশনের আগে পঞ্জাব সরকারের পেশ করা কৃষি বিলের খসড়া কপি দাবি করেছিলেন পঞ্জাবের আম আদমি পার্টি(আপ)-র বিধায়করা। কিন্তু, পঞ্জাবের অমরিন্দর সিং-র সরকার তা দিতে অস্বীকার করে। সেই ঘটনার প্রতিবাদে সোমবার পঞ্জাবের বিধানসভায় রাত কাটান আপ বিধায়করা। যদিও পঞ্জাবের  আপ নেতা হরপাল চিমা বলেন, “আমাদের দল কৃষি আইনের বিরুদ্ধে বিল আনলে তা সমর্থন করবে। কিন্তু সরকারের উচিত সেই বিলের কপি আগেভাগে আমাদের দেখানো। নাহলে আমরা এবিষয়ে আলোচনা ও বিতর্ক চালাব কী করে?”

বাদল অধিবেশনে সংসদে  নতুন কৃষি বিল পেশ করে কেন্দ্রীয় সরকার। বিরোধীদের তীব্র বিরোধিতা—কটাক্ষকে পাত্তা না দিয়ে কার্যত সংখ্যার জোরে সেই বিলকে আইনে পরিণত করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। যদিও এনডিএ সরকারের শরিক দল পঞ্জাবের শিরোমণি আকালি দলের নেত্রী তথা এনডিএ সরকারের মন্ত্রী হরসিমরৎ কৌউর পদত্যাগ করেন। এমনকী এই নয়া কৃষি আইনের বিরোধিতায় কৃষি প্রধানস রাজ্য পঞ্জাব সহ গোটা দেশের কৃষকরা পথে নামেন। এদিকে পঞ্জাবের শিরোমণি আকালি দল এনডিএ ছাড়াও পরেও এনডিএ সরকারের বিরুদ্ধে তথা মোদি সরকারের আমলে তৈরি সংশোধিত কৃষি আইনের পালটা আইন আনার জন্য আজ পঞ্জাব বিধানসভায় কৃষি বিলের খসড়া পেশ করা হয়।