পর্যাপ্ত বৃষ্টি নেই, চিন্তা বাড়ছে ধান-পাট চাষিদের

147

ফুলবাড়ি: ভরা আষাঢ়েও পর্যাপ্ত বৃষ্টি নেই। ফলে চিন্তা বাড়ছে ফুলবাড়ি, বড় শৌলমারি সহ মাথাভাঙ্গা ২ ব্লকের বিভিন্ন এলাকার আমন ধান চাষিদের। উঁচু ও বিভিন্ন নদীর চর এলাকায় জলের অভাবে এখনও জমিতে ধানের চারা রোয়া দিতে পারেননি অনেক চাষি। অনেকে পাম্পসেটের মাধ্যমে জমিতে জল দিয়ে ধানের চারা রোয়া দিয়েছেন। কিন্তু বৃষ্টির অভাবে রোয়া দেওয়া ধান খেত শুকিয়ে ফাটল ধরে যাওয়ায় চাষিদের চিন্তা বেড়েছে। পর্যাপ্ত বৃষ্টি না পেলে ওই সমস্ত জমিতে ধান যেমন বৃদ্ধি পাবে না, তেমনি ধানের গাছের নতুন পাশকাঠিও বৃদ্ধি পাবে না।

চাষিদের বক্তব্য, উঁচু ও নদীর চর এলাকায় মূলত আষাঢ় মাসের প্রথম সপ্তাহের ভারী বৃষ্টিতে ধানের চারা রোপণ করা হয়। কিন্তু এবছর পর্যাপ্ত বৃষ্টি না হওয়ার কারণে ওইসব জমিতে ধানের চারা রোপণ প্রায় দুই সপ্তাহের মতো পিছিয়ে গিয়েছে। চারা রোপনের পরেও পর্যাপ্ত বৃষ্টি হচ্ছে না। জমি চৌচির হয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি পাট জাগ দেওয়ার ক্ষেত্রেও অসুবিধা দেখা দিয়েছে।

- Advertisement -

আমন ধান চাষি সুভাষ কীর্তনিয়া, গোবিন্দ মণ্ডল প্রমুখ বলেন, ‘ধান চাষের জন্য জমি আধা তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু সেই জমি শুকিয়ে গিয়েছে। আবার কিছু জমিতে পাম্পসেটের মাধ্যমে জল দিয়ে ধানের চারা রোপণ করা হয়েছে। কিন্তু পর্যাপ্ত বৃষ্টি না হওয়ার কারণে জমি ফেটে চৌচির হয়ে যাচ্ছে। তাই চিন্তা বাড়ছে।‘

মাথাভাঙ্গা ২ ব্লকের সহ কৃষি অধিকর্তা মলয় কুমার মণ্ডল বলেন, ‘এবছর তুলনামূলকভাবে বৃষ্টিপাত কম হচ্ছে। তবে, আমন ধান রোয়া দেওয়ার ক্ষেত্রে তেমন অসুবিধা এখনও তৈরি হয়নি। আশা করা যাচ্ছে বৃষ্টি হবে। তবে চাষিদের পাট জাগ দেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু জায়গায় অসুবিধা হচ্ছে। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে ব্লক কৃষি দপ্তর।‘