হোয়াটসঅ্যাপে পাঠানো আইনি নোটিশ বৈধ, জানাল বম্বে হাইকোর্ট

124

মুম্বই, ১৬ জুনঃ হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে পাঠানো আইনি নোটিশকে বৈধ বলে জানাল বম্বে হাইকোর্ট। কোনো মেসেজের নীচে নীল টিক চিহ্ন আসার অর্থ সেই মেসেজটি পড়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে হাইকোর্টের পর্যাবেক্ষণ, হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে নোটিশ পাঠানোকে সশরীরে নোটিশ পাঠানোর সমতুল বলে ধরে নেওয়া হবে। দেওয়ানি কার্যবিধি অনুযায়ী কোনো ব্যক্তি বা সংস্থাকে রেজিস্টার্ড পোস্ট মারফত অথবা সশরীরে নোটিশ পাঠানো যায়। পরবর্তীকালে অবশ্য তথ্যপ্রযুক্তি আইন চালু হওয়ার পর ইমেলের মাধ্যমে আইনি নোটিশকেও বৈধ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। এবার তাতে হোয়াটসঅ্যাপ সংযুক্ত হওয়ায় আইনি লড়াইয়ে খানিকটা হলেও স্বস্তি পেলেন মামলাকারীরা।

রোহিত যাদব নামে মুম্বইয়ে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ক্রেডিট কার্ডে এক লক্ষ টাকার বকেয়া ফেলে রাখার অভিযোগ তোলে ভারতীয় স্টেট ব্যাংক। কিন্তু তাঁকে একাধিকবার ফোন এবং নোটিশ পাঠানো সত্ত্বেও তিনি তার কোনো জবাব দেননি বলে অভিযোগ করেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এরপর এসবিআইয়ে ক্রেডিট কার্ড ডিভিশন রোহিতের বিরুদ্ধে হোযাটসঅ্যাপ মারফত আইনি নোটিশ পাঠায়। হাইকোর্টকে ব্যাংক জানায়, অভিযুক্ত ব্যক্তি যে আইনি নোটিশ পেয়েছেন এবং তা তিনি পড়েছেন সেটি হোযাটসঅ্যাপে নীল টিক চিহ্ন থেকেই প্রমাণিত। ব্যাংকের বক্তব্য শুনে হাইকোর্টের বিচারপতি গৌতম প্যাটেল জানান, হোয়াটসঅ্যাপ ইন্ডিকেটর থেকে পরিষ্কার, ওই মেসেজটি শুধু পড়াই হয়নি, তার সঙ্গে যে নোটিশটি পাঠানো হয়েছিল সেটিও অভিযুক্ত পড়েছেন। এরপরই রোহিতের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করার জন্য ব্যাংককে তার ঠিকানা জানানোর নির্দেশ দেয় আদালত।

- Advertisement -