ল্যাবের সংখ্যা বাড়লেও রাজ্যে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা কমছে

197

অনলাইন ডেস্ক: রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। প্রচুর মানুষ করোনামুক্ত হলেও সংক্রমণের গতি কোনওভাবেই রোখা যাচ্ছে না। রাজ্য সরকার উদ্যোগী হয়ে রাজ্যের নানা প্রান্তে করোনা পরীক্ষা করার জন্য ভিআরডিএল ল্যাব, ট্রুনাট, সিবিনাট, অ্যান্টিজেন টেস্ট চালু করলেও কোনও এক অজানা কারণে রাজ্যে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা সেভাবে বাড়েনি। উলটে লালা পরীক্ষার সংখ্যা কমছে রাজ্যে। পরিসংখ্যানের দিকে চোখ বোলালেই তা সহজে বোঝা যাবে।

বুলেটিনের তারিখল্যাবের সংখ্যাকরোনা পরীক্ষার সংখ্যাঅ্যাক্টিভ কেস২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত
১৪ সেপ্টেম্বর৭৬৪৭৫৩৭২৩৬৯৩৩২১১
১৫ সেপ্টেম্বর৭৬৪৫২২৬২৩৯৪২৩২২৭
১৬ সেপ্টেম্বর৭৬৪৫৭১৩২৪১৪৭৩২৩৭
১৭ সেপ্টেম্বর৭৭৪৫৫৩৬২৪৩৩৬৩১৯৭
১৪ অক্টোবর৯১৪২৫৪৯৩১৫০৫৩৬৭৭
১৫ অক্টোবর৯২৪২৬৫৩৩১৯৮৪৩৭২০
১৬ অক্টোবর৯২৪৩২২৭৩২৫০০৩৭৭১
১৭ অক্টোবর৯২৪৩৪২৮৩৩১২১৩৮৬৫

উপরের পরিসংখ্যানে চোখ বোলালেই দেখা যাচ্ছে, সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি রাজ্যে ল্যাবের সংখ্যা ছিল ৭৬। তার ঠিক একমাস পর অক্টোবরের মাঝামাঝি রাজ্যে ল্যাবের সংখ্যা বেড়ে ৯২ হলেও করোনা পরীক্ষার সংখ্যা দু থেকে তিন হাজার কমেছে। ১৪ সেপ্টেম্বরের বুলেটিনে ২৪ ঘণ্টায় করোনা পরীক্ষার সংখ্যা ছিল ৪৭৫৩৭। তার একমাস পর ল্যাবের সংখ্যা বাড়লেও পরীক্ষার সংখ্যা কমে হয়েছে ৪২৫৪৯।

- Advertisement -

করোনা রোগীদের শনাক্ত করার প্রথম ধাপই হল টেস্টিং। সেখানে রাজ্যে এই ক্রমহ্রাসমান করোনা পরীক্ষার চিত্র নিঃসন্দেহে চোখ কপালে তুলতে বাধ্য। পুজোর পর সংক্রমণ বাড়বে বলে আশঙ্কা করেছেন চিকিৎসকদের একাংশ। তাই লালা পরীক্ষার সংখ্যাও সেই গতিতে বাড়ানো উচিত বলে মত চিকিৎসকদের। এদিকে রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক মানুষের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি মানুষ। তবে সুস্থও হচ্ছেন বহু মানুষ। শনিবার সন্ধ্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ হাজার ১৮৩ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২ লক্ষ ৭৭ হাজার ৯৪০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৮৬৫ জন। এর ফলে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ১৭ হাজার ছাড়াল। এই নিয়ে রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ লক্ষ ১৭ হাজার ৫৩। বাংলায় কোভিড-১৯ এর কারণে মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৯৯২ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬১ জনের। রাজ্যে সক্রিয় করোনা রোগী ৩৩ হাজার ১২১।

স্বাস্থ্য দপ্তরের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, রাজ্যে প্রতি মিলিয়ন জনসংখ্যায় ৪৩ হাজার ৮৬৪ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে। রাজ্যে সরকারি, বেসরকারি মিলিয়ে ৯২টি ল্যাবে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে। চলতি সপ্তাহে ৩টি ল্যাবে পরীক্ষা চালুর অনুমতি মিলেছে। এখনও ১টি ল্যাব অনুমতি অপেক্ষায় রয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে ৪৩ হাজার ৪২৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত রাজ্যে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা ৩৯ লক্ষ ৪৭ হাজার ৭৫০। এর মধ্যে ৮.০৩ শতাংশ ক্ষেত্রে রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। স্বাস্থ্য দপ্তরের এদিনের বুলেটিনে জানানো হয়েছে, বাংলায় সুস্থতার হার ৮৭.৬৬ শতাংশ। রাজ্যে ৯২টি হাসপাতালে করোনার চিকিৎসা চলছে। এর মধ্যে ৩৭টি সরকারি ও ৫৫টি বেসরকারি হাসপাতাল।

হাসপাতালগুলিতে মোট কোভিড বেড রয়েছে ১২ হাজার ৩৮৫টি৷ আইসিইউ শয্যা রয়েছে ১ হাজার ২৪৩টি। এছাড়া ভেন্টিলেশন সুবিধা রয়েছে ৭৯০টি শয্যায়৷ ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৬২ জনের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনার ১৫ জন, কলকাতার ১৫ জন, হাওড়ার ৭ জন, নদিয়ার ৪ জন, হুগলির ৪ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৪ জন রয়েছেন।