কোঝিকোড়, ১৯ জানুয়ারিঃ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) চালু করতে ভারতের যে কোনো রাজ্য বাধ্য বলে মন্তব্য করলেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা ও সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী কপিল সিব্বল। কেরলে এক সাহিত্য উৎসবে সিব্বল বলেন, ‘সংসদে পাশ হয়ে যাওয়া আইন মানব না, এটা কোনও রাজ্য সরকার বলতে পারে না। কোনো রাজ্য এই আইনের বিরোধিতা করতে পারে। বিধানসভায় সেই আইনের বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ হতে পারে। কেন্দ্রকে ওই আইন প্রত্যাহার করার কথাও কোনও রাজ্য বলতে পারে। কিন্তু কার্যকর করব না বলাটা অসাংবিধানিক।

সিব্বল আরও বলেন, ’কিছু রাজ্য এনপিআর নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে। এনপিআর তৈরির সময় রাজ্য সরকারের আধিকারিকরাই তৃণমূল স্তরে কাজ করে থাকেন। সুতরাং কোনো রাজ্য নিচুতলায় কেন্দ্রের সঙ্গে অসহযোগিতা করতেই পারে, তবে সেটাও কতটা সাংবিধানিক তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।’ নাগরিকত্ব সংশোধন আইন নিয়ে সর্বভারতীয় স্তরে কংগ্রেস বিরোধিতা জানাচ্ছে। পঞ্জাবে কংগ্রেস সরকার ও কেরলে ক্ষমতাসীন বামেরা বিধানসভায় সর্বসম্মত ভাবে একটি প্রস্তাবও পাশ করিয়েছে সিএএ বিরুদ্ধে। সে প্রসঙ্গে কপিল বলেন, রাজ্য বিধানসভার পূর্ণ অধিকার রয়েছে কোনও কেন্দ্রের আইনের বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ করানোর। যার অর্থ হল ওই রাজ্য কেন্দ্রের আইনটি নিয়ে খুশি নয়। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট কোনও আইনকে একবার বৈধ ঘোষণা করে দিলে তার পর রাজ্য সরকারের পক্ষেও কিছু করার থাকে না বলেই মন্তব্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের এই পোড় খাওয়া আইনজীবী।