জঙ্গলের গাছ কাটতে বাধা, দুষ্কৃতী হানায় জখম বনকর্মী

271

কুমারগ্রাম: জঙ্গলের গাছ কাটতে বাধা দেওয়ায় দুষ্কৃতী হানায় জখম হলেন অস্থায়ী বনকর্মী। শনিবার ভল্কা রেঞ্জের চ্যাংমারি বিটের জঙ্গলের ঘটনা। ঘটনার পর বনকর্মীদের ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায় ওই দুষ্কৃতী। জখম বনকর্মী কুমুদ দাসকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কুমারগ্রাম প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসেন ঘোড়ামারা বিটের বিটবাবু জাহাঙ্গীর ইসলাম। হাসপাতা সূত্রে খবর, আহত কুমুদ বাবুর বাম গালে ছ‘টি সেলাই পড়েছে। ভল্কা রেঞ্জ অফিস সূত্রে খবর, পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হবে।

সূত্রের খবর, এদিন দুপুরে সংকোশ নদীর পাড় লাগোয়া চ্যাংমারি বিটের জঙ্গলে রুটিন টহল দিচ্ছিলেন দুই অস্থায়ী বনকর্মী। ওই সময় ৭-৮ জন কাঠচোর জঙ্গলের গাছ কাটছিল। বনকর্মীদের দেখে চোরেরা পালিয়ে গেলেও একজন গাছ কাটার ছোটো করাত হাতে রুখে দাঁড়ায়। তাঁকে পাকড়াও করতে এগিয়ে যান অস্থায়ী বনকর্মী কুমুদ দাস। অভিযোগ, ওই সময় ধারালো করাত হাতে কুমুদ বাবুর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। সহকর্মীকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন পাখরা সুতার। দুষ্কৃতী এবং বনকর্মীদের মধ্যে ধ্বস্তাধস্তি শুরু হয়। ওই সময় ধারালো করাতের ঘায়ে কুমুদ দাস আহত হন। সুযোগ বুঝে বনকর্মীদের ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায় ওই দুষ্কৃতী।

- Advertisement -

প্রত্যক্ষদর্শী পাখরা সুতার বলেন, ধারালো করাত হাতে রুখে দাঁড়ানো ব্যক্তির বাড়ি সাহেবপাড়া এলাকায়। পালিয়ে যাওয়া অন্যান্য সঙ্গীরাও ওই এলাকার বাসিন্দা। ওরা জঙ্গলের পাঁচ নম্বর কম্পার্টমেন্টে জারুল গাছ কাটছিল। আমাদের দু’জনকে দেখে বাকিরা পালিয়ে গেলেও গাছ কাটায় বাধা পেয়ে একজন রুখে দাঁড়ায় এবং আক্রমণ হানে আমাদের উপর। গোটা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের(পূর্ব) উপক্ষেত্র অধিকর্তা শ্রী হরিশ বলেন, বনকর্মীর উপর চড়াও হওয়ার বিষয়টি সম্পর্কে এখনও বিস্তারিত রিপোর্ট হাতে পাইনি। সবকিছু জানার পরে বলা সম্ভব।