ওদলাবাড়ি, ১৩ অগাস্টঃ সোমবার রাতে ওদলাবাড়িতে অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেডের রিপিটার স্টেশনের পেছনে মাটির নিচ থেকে অপরিশোধিত তেল বেরিয়ে আসার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। বিপদ রুখতে গভীর রাতেই ব্যবস্থা গ্রহণ করে সংস্থার কর্তৃপক্ষ।

গতকাল ঝড়-বৃষ্টির মাঝে রাত ৯টা নাগাদ অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেডের ওদলাবাড়ি রিপিটার স্টেশনের কাছেই মাটির নিচ থেকে প্রচুর পরিমাণে অপরিশোধিত তেল বেরিয়ে এসে সরাসরি কাছাকাছি পদ্মডোবা নামে একটি ঝোড়া দিয়ে বয়ে যেতে শুরু করে। তেলের গন্ধে বিধানপল্লীর  চারিদিক ছেয়ে যায়। এলাকার বাসিন্দারাই তেলের উৎস খুঁজতে বেরিয়ে বিষয়টি দেখেন। আতঙ্কিত বাসিন্দারা সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে খবর দেন। এরপর মাল থানার ওসি অসীম মজুমদার ঘটনাস্থলে পৌঁছান। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে থানা থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী এনে পুরো এলাকা ঘিরে রাখেন। আশপাশের কোনও বাড়িতে যাতে রান্নার গ্যাস বা দেশলাই জ্বালিয়ে অগ্নিসংযোগ ঘটানো না হয় তার জন্য সতর্ক করা হয়। তার মাঝেই অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেডের আঞ্চলিক হেড কোয়ার্টার সোনাপুরে যোগাযোগ করে পুলিশ। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে মালবাজার থেকে দমকল বাহিনীর একটি ইঞ্জিন নিয়ে আসা হয়। গভীর রাতে একে একে ওদলাবাড়ি বিধানপল্লীতে পৌঁছান মালের এসডিপিও দেবাশীষ চক্রবর্তী, সিআই আশীষ থাপা সহ পুলিশকর্মীরা। রাত দেড়টা নাগাদ সোনাপুর থেকে অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেডের ইঞ্জিনিয়াররা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

মঙ্গলবার সকালে ঘটনাটি জানাজানি হতেই প্রচুর মানুষ বিষয়টি দেখতে পদ্মডোবায় আসেন। অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেডের কর্মীদের একটি দল তুলোর গজ চুবিয়ে ড্রেনে জমে থাকা কয়েক ড্রাম অপরিশোধিত তেল উদ্ধার করেন। এদিকে, অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেডের ইঞ্জিনিয়াররা ঘটনাটি নিয়ে মুখ খুলতে না চাইলেও বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গিয়েছে, মাটির নিচে পাইপ লাইনের একটি ভাল্ব মেশিন বিগড়ে গিয়েই অপরিশোধিত তেল বেরিয়ে আসার ঘটনাটি ঘটেছে। ভাল্বটির প্রয়োজনীয় সংস্কার করা হয়েছে।