বধূকে উত্ত্যক্ত, প্রতিবাদ করায় শ্বশুরকে ধারাল অস্ত্রের কোপ যুবকের

185

বর্ধমান: এক গৃহবধূকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় শ্বশুরকে ধারাল অস্ত্রের কোপ মারার অভিযোগ উঠল এক প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে। জখম শ্বশুরের নাম সুমন হালদার। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কালনা থানার রামকৃষ্ণপল্লিতে। ঘটনার পরই দুই পরিবারের মধ্যে গণ্ডগোল বেধে যায়। এতে দু’পক্ষের বেশ কয়েকজন জখম হয়েছেন। জখমদের উদ্ধার করে কালনা সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুই পরিবার একে অপরের বিরুদ্ধে কালানা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দুই পরিবারই কালনার রামকৃষ্ণপল্লি এলাকার বাসিন্দা। অভিযোগ, ওই এলাকার হালদার পরিবারের বধূর সঙ্গে আগে প্রেমের সম্পর্ক ছিল প্রতিবেশী যুবক অমিত বিশ্বাসের। অমিত ওই বধূকে কু-কথা বলার পাশাপাশি প্রতিনিয়ত উত্ত্যক্ত করত বলে অভিযোগ। অমিত সীমা ছাড়ালে বধূ তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে সবকিছু খুলে বলেন। এদিন সকালে যুবকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সরব হন বধূর শ্বশুর সুমন হালদার। তখনই যুবক ও তার পরিবারের লোকজন বধূর শ্বশুরের উপর চড়াও হন। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই যুবক বধূর শ্বশুরের মাথায় বটির কোপ বসিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। তা দেখে পরিবারের অন্য লোকজন বাধা দিতে গেলে যুবকের পরিবারের লোকজন বধূর কোল থেকে তাঁর শিশু সন্তানকে কেড়ে নিয়ে ছুঁড়ে ফেলে দেন। যুবক ও তার পরিবারের সদস্যরা বধূ ও তাঁর বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন দেওরকে মারধরও করেন বলে হালদার পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ।

- Advertisement -

এদিকে, এই ঘটনার পরেই বধূর পরিবারের অন্য সকল সদস্যরা অমিতের পরিবারের উপর চড়াও হন বলে অভিযোগ। পালটা মারে যুবকের পরিবারের কয়েকজনও আহত হয়েছেন। চিকিৎসা করিয়ে দু’পক্ষই কালনা থানায় অভিযোগ দায়ের করে।