শ্মশানে বৃদ্ধার মৃতদেহ নিয়ে তুলকালাম

85
প্রতীকী

রামপুরহাট: শ্মশানে মৃত বৃদ্ধার শরীরে প্রাণের স্পন্দন! ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল তারাপীঠ মহাশ্মশানে। খবর পেয়ে তারাপীঠ থানার পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে রামপুরহাট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠায়।

জানা গিয়েছে, মৃতার নাম সরস্বতী চক্রবর্তী। বাড়ি তারাপীঠ বামদেবপল্লী। বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ হয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার বাড়ির লোকজন বৃদ্ধাকে নিয়ে তারাপুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রের যান। সেখানে চিকিৎসা করিয়ে ফের বাড়িতে নিয়ে আসেন। বাড়িতে ফেরার পর বৃদ্ধার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হতে থাকে। শুক্রবার ভোরের দিকে বাড়িতেই তাঁর মৃত্যু হয়। জানা গিয়েছে, মৃতার বাড়ির লোকজন এবং আত্মীয়রা দেহ সৎকারের জন্য তারাপীঠ শ্মশানে নিয়ে গেলে মুখাগ্নির সময় একজন দেখেন মহিলা নাকি হাত ভাঁজ করছেন এবং পা নাড়াচ্ছেন। এরপরই আশেপাশের উৎসুক জনতা ভিড় জমান শ্মশানে। দ্রুত খবর দেওয়া হয় তারাপীঠ থানায়। মৃতার নাতি কাজল বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘শ্মশানে মুখাগ্নির সময় কেউ কেউ বলছে জীবিত রয়েছেন। ডাক্তার নিয়ে আসা হয়েছিল। ডাক্তারের সহকারি দেখে বললেন তিনি জীবিত নেই। এদিকে গুজব ছড়িয়ে পড়ায় পুলিশ কোনও ঝুঁকি নেয়নি।’ স্থানীয় চিকিৎসক দেবাশিস চট্টোপাধ্যায় জানান, খবর পেয়ে তিনি শ্মশানে গিয়েছিলেন। তবে পরীক্ষা নিরীক্ষার পর দেখা যায় দেহে প্রাণ নেই। হয়তো পরিবারের কেউ পালস দেখে ভেবেছিলেন জীবিত রয়েছে। পুলিশের তরফে জানানো হয়, সরকারিভাবে মৃত শংসাপত্র না পাওয়া পর্যন্ত দাহ করা যাবে না। পুলিশ দেহ উদ্ধার করে রামপুরহাট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যায়।

- Advertisement -