মুখ-মাথা থেঁতলে বৃদ্ধা খুন

64

বর্ধমান: নিজের বাড়িতেই রহস্যজনকভাবে খুন হলেন এক বৃদ্ধা। মৃতার নাম কমলা বাউরি(৬৫)। সোমবার সকালে ঘটনার কথা জানাজানি হতেই ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে পূর্ব বর্ধমানের জ্যোৎশ্রীরাম গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীন শাহহোসেনপুরের মালিক পাড়ায়।

খবর পেয়ে এসডিপিও (বর্ধমান দক্ষিণ) আমিনুল ইসলাম খানের নেতৃত্বে জামালপুর থানার পুলিশ কর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছোন। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, বৃদ্ধাকে খুন করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য এদিনই দেহ বর্ধমান হাসপাতালের পুলিশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। খুনের রহস্য উন্মোচনে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শাহহোসেনপুরের মালিক পাড়ায় সরকারি আবাস যোজনার একটি ঘরে বৃদ্ধা কমলা বাউরি একা বসবাস করতেন। তাঁর একমাত্র মেয়ের বিয়ে হয়েছে বাঁকুড়া জেলায়। বৃদ্ধার স্বামী রতন বাউরি মারা গিয়েছেন কয়েকবছর আগে। বয়সের ভারে কাজকর্মও খুব একটা করতে পারতেন না কমলাদেবী। বার্ধক্য ভাতার সামান্য কিছু টাকা ও প্রতিবেশীদের সাহায্যেই দিন চলতো তাঁর। বাড়িটুকু ছাড়া বৃদ্ধার স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বা টাকা-পয়সা কিছু নেই। এমন এক বৃদ্ধাকে কী কারণে খুন হতে হল, সেই বিষয়টি পুলিশ, প্রশাসন ও স্থানীয়দের ভাবিয়ে তুলেছে।

এসডিপিও আমিনুল ইসলাম খান জানিয়েছেন, এদিন সকালে প্রতিবেশীরা বৃদ্ধাকে তাঁর ঘরে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছোয়। ঘরে ঢুকে দেখা যায়, মেঝেতে বৃদ্ধার রক্তাক্ত দেহ পড়ে আছে। তাঁর মাথা ও মুখে ক্ষত দেখতে পাওয়া যায়। এসডিপিও জানান, প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, ভারী কিছু দিয়ে বৃদ্ধার মাথা ও মুখ থেঁতলে দেওয়ায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে এলেই মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। তদন্ত চলছে।