একদা বামফ্রন্টের শক্ত ঘাঁটি মেখলিগঞ্জে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া বামেরা

208

মেখলিগঞ্জ: একদা বামফ্রন্টের শক্ত ঘাঁটি কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে এবার ঘুরে দাঁড়াতে চাইছেন বামেরা। এই কেন্দ্রে এবার তাদের তরফে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী হয়েছেন সারাভারত ফরোয়ার্ড ব্লকের গোবিন্দ রায়। প্রার্থী ঘোষণার হবার সাথে সাথেই তিনি গোটা বিধানসভা এলাকা চষে বেড়ানোর কাজে নেমে পড়েছেন। এখনই বড় কোনও বৈঠক কিংবা সভার দিকে না গিয়ে প্রতিটি ভোটারের কাছে পৌঁছে তাদের বোঝানোর চেষ্টা করছেন সংযুক্ত মোর্চার কর্মী সমর্থকরা। রাজ্যের এক নম্বর এই মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে বামেরা টানা ৩০ বছর ক্ষমতায় ছিলেন। রাজ্যে পালাবদলের সময়েও এই কেন্দ্রটি বামেরা ধরে রেখেছিলেন। সেবারও জয়ী হয়ে বিধায়ক হয়েছিলেন পরেশ চন্দ্র অধিকারী।

গত বিধানসভা নির্বাচনে অবশ্য এই কেন্দ্রে বামেদের টিকিটে লড়াই করে পরাজিত হন পরেশবাবু। পরেশবাবু তৃণমূলের কাছে হেরে গেলেও জয়ের ব্যবধান খুব একটা বেশি ছিল না। অর্ঘ্যবাবু পরেশবাবুর চেয়ে ৬৬৩৭টি ভোট বেশি পেয়েছিলেন।এই অবস্থায় এবার ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টাতে মরিয়া চেষ্টা তাঁরা চালাচ্ছেন। এমনকি জয়ের স্বপ্নও তাঁরা দেখছেন বলে সংযুক্ত মোর্চার নেতাঁরা জানিয়েছেন। এই কেন্দ্রের সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী গোবিন্দ রায় বলেন, ‘বামেদের কাছ থেকে একটা সময় সরে যাওয়া মানুষজন ফের তাদের দলে ফিরতে শুরু করেছেন। তাঁরা অনুভব করছেন বামজমানাই ভালো ছিল। তাই প্রচারে যেখানেই যাওয়া হচ্ছে সর্বত্রই ব্যাপক সাড়া মিলছে। জয়ের বিষয়ে আমি তীব্র আশাবাদি।’

- Advertisement -

এই কেন্দ্রে এবার তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী হয়েছেন পরেশ চন্দ্র অধিকারী।বিজেপির গতবারের প্রার্থী দধিরাম রায় এবারও বিজেপির হয়ে লড়াইয়ে নেমেছেন।অপরদিকে সংযুক্ত মোর্চার তরফে ফরোয়ার্ড ব্লকের প্রার্থী গোবিন্দ রায়। এই তিন প্রার্থীর মধ্যে প্রথম দুজনও একটা সময় সারাভারত ফরোয়ার্ড ব্লক দলের সাথে যুক্ত ছিলেন। তাই তিন ফরোয়ার্ড ব্লক নেতাই একে অপরকে হারাতে ময়দানে নেমে পড়েছেন। জয়ের বিষয়ে অবশ্য আশাবাদী তিনপক্ষই। তবে শেষ হাসি কে হাসবেন সেটা অবশ্য পরিস্কার হবে ভোট গণনার পরেই। যদিও রাজনৈতিক মহলের একটি অংশ মনে করছেন এখানে এবার তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে মূল লড়াই হতে চলেছে। কারণ গত বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস এই কেন্দ্রে যেমন জয় লাভ করেন। তারপর পঞ্চায়েত, লোকসভা নির্বাচনে এখানে বিজেপির শক্তিও যথেষ্ট বৃদ্ধি পেয়েছে।

মেখলিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে ২ লক্ষ ২৬ হাজার ৫২৫ জন ভোটার এবার প্রার্থীদের ভাগ্য নির্ধারণ করবে। উল্লেখ্য গত বিধানসভা ভোটে এই কেন্দ্রে বামফ্রন্টের ফরোয়ার্ড ব্লক প্রার্থী পরেশ চন্দ্র অধিকারী পেয়েছিলেন ৬৮,১৮৬টি ভোট। অন্যদিকে, তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অর্ঘ্যবাবুর ঝুলিতে পড়েছিল ৭৪,৮২৩টি ভোট। অর্ঘ্যবাবু জয়ী হয়ে বিধায়ক হন। বিজেপির দধিরাম রায় ২৩,৩৫৫টি ভোট পেয়েছিলেন। বহুজন সমাজ পার্টির জ্যোতিষ রায় ৫৬৫০টি ভোট। এসইউসিএই-এর প্রমীলা রায় ২০৯০টি ভোট, আমরা বাঙালির রতন বর্মন ১৮০৯টি ভোট, কামতপুর পিপলস পার্টির বিনোদ রায় ৮৪৫টি ভোট, নির্দল প্রার্থী গোলাপি রায় ও দীপেন রায় পেয়েছিলেন ৯৫৫ এবং ৯১৪টি ভোট পেয়েছিলেন।