ওভারলোডিংয়ের জেরে একের পর এক দুর্ঘটনা এশিয়ান হাইওয়েতে

193

বীরপাড়া: ৪৮ নম্বর এশিয়ান হাইওয়ের ওপর বোল্ডার বোঝাই গাড়িগুলি মাঝে মাঝেই দুর্ঘটনার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। শনিবার রাতে মাদারিহাট থানার অন্তর্গত রাঙ্গালিবাজনা চৌপথির কাছে বোল্ডার বোঝাই একটি ১২ চাকার ট্রাক উলটে যায়। রবিবার রাতেও বীরপাড়া চৌপথির কাছে উলটে যায় আরও একটি বোল্ডার বোঝাই ডাম্পার। দু’টি ট্রাকই চ্যাংরাবান্ধা হয়ে বাংলাদেশে যাচ্ছিল। স্থানীয়দের অভিযোগ, ওভারলোডিংয়ের জেরেই এ ধরনের  দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে। ফেডারেশন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রাক অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশনের অভিযোগ, ওভারলোডিং বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে বহুবার পুলিশ প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েও লাভ হয়নি।

সংগঠনের বক্তব্য, একটি ডাম্পার বর্তমান বিধি মোতাবেক ১৮ টন বোল্ডার বহন করতে পারে। কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া বিধি মোতাবেক অন্যান্য রাজ্যে আরও ৫ টন অতিরিক্ত পণ্য পরিবহণে ছাড় দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু  আমাদের রাজ্যে ওই নিয়ম এখনও পর্যন্ত বলবৎ করা হয়নি। ফলে এখানে ওভারলোডিংয়ের প্রবণতা বন্ধ হয়নি। এক একটি মালবাহী গাড়ি অনেক সময় দ্বিগুণ পণ্য পরিবহণ করছে। এতে একদিকে রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। অন্যদিকে দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, এশিয়ান হাইওয়ে দিয়ে চলা দূরপাল্লার ট্রাকগুলি ছাড়াও পাগলি ভুটান থেকে বীরপাড়া পর্যন্ত ডলোমাইটবাহী ট্রাক ও ডাম্পারগুলিতেও মাত্রাতিরিক্ত পণ্য পরিবহণ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। এছাড়া মাদারিহাট বীরপাড়া ব্লকের বিভিন্ন এলাকার নদীগুলি থেকে বালি বজরি তুলে বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহকারী মালবাহী গাড়িগুলির বিরুদ্ধেও ওভারলোডিংয়ের অভিযোগ উঠেছে বারবার। মাদারিহাট থানার ওসিটি এন লামা ও বীরপাড়ার ট্রাফিক ওসি সিজান মোচারির বক্তব্য, ওভারলোডিং বন্ধ করতে লাগাতার অভিযান চালানো হচ্ছে। তবে চালক ঘুমিয়ে পড়াতেও এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে বক্তব্য তাদের।