শিশুবাড়িতে যুবক খুনের ঘটনায় ধৃত ১

123

রাঙ্গালিবাজনা: আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট থানার শিশুবাড়িতে যুবক খুনে অভিযুক্ত একজনকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ। শনিবার আলাউদ্দিন ওরফে ছোট ভোদলু টিকা নামে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে শিশুবাড়ির কাছেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মাদারিহাট থানার ওসি গৌরব হাঁসদা। তবে আরেক অভিযুক্ত মাহাবুল আলম এখনও পলাতক।

পুলিশ সূত্রের খবর, খুনের পর বহুদূরে গিয়ে গা ঢাকা দেওয়ার মতলবে টাকা পয়সা সংগ্রহে পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করছিল ভোদলু। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তাঁকে এদিন ধরে ফেলে পুলিশ। স্থানীয় সূত্রের খবর, চুরি, ছিনতাই, বেআইনি ব্যবসা ও জুয়ার কারবারে জড়িত ছিল খুনে অভিযুক্ত ওই দু’জন। এদিকে, এলাকার যাবতীয় বেআইনি কাজকর্মের খবর পুলিশকে দিতেন শহিদুল। এনিয়ে এদের সঙ্গে শত্রুতা তৈরি হয় শহিদুলের। এলাকার একটি বাইক চুরি নিয়ে ২৬ অক্টোবর প্রকাশ্যে তাদের সঙ্গে বচসায় জড়ান শহিদুল। বচসা চলাকালীন অভিযুক্তরা শহিদুলকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। সেদিন সন্ধ্যায় শহিদুলকে শিশুবাড়ি বাজার এলাকায় পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায় অভিযুক্তরা। বীরপাড়া রাজ্য সাধারণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

- Advertisement -

এদিকে ধৃতের কঠোর শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এলাকার বেশ কয়েকজন বাসিন্দা এদিন পুলিশের সঙ্গে দেখা করে তাঁদের দাবির কথা জানান। স্থানীয়দের অভিযোগ, শিশুবাড়ি সহ সংলগ্ন এলাকাগুলিতে দীর্ঘদিন ধরে রমরমিয়ে চলছিল জুয়ার আসর। পাশাপাশি নেশার সামগ্রী কেনাবেচা, কাঠ পাচারের মতো বেআইনি কার্যকলাপও চলছিল। এদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক কোনও পদক্ষেপ না করায় ক্রমেই বেপরোয়া হয়ে উঠেছিল তাঁরা। অবশ্য শহিদুল ইসলাম খুন হওয়ার পর থেকেই এলাকায় জুয়ার আসর বন্ধ হয়ে গিয়েছে।