নির্বাচনের আগে সীমান্তে গ্রেপ্তার বাংলাদেশি

74

ফাঁসিদেওয়া, ৮ এপ্রিলঃ বিধানসভা নির্বাচনের আগে ফাঁসিদেওয়ার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে বাংলাদেশি গ্রেপ্তার হল। ধৃত নজরুল ইসলাম (৪৫) বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া থানার বোয়ালমারী, সিপাহী পাড়ার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্লকের বাণেশ্বরজোত এলাকায় ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। স্থানীয় সূত্রে খবর, এদিন রাতে গ্রামবাসীরা ৩ জন অপরিচিত ব্যক্তিকে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে গ্রামে প্রবেশ করতে দেখেন। এরপরই বিষয়টি ঘিরে শোরগোল পড়ে যায়। গ্রামবাসীরা একজনকে আটক করতে সক্ষম হন। বাকি ২ জন সুযোগ বুঝে এলাকা ছেড়ে চম্পট দেয়। এরইমধ্যে গ্রামবাসীরা খবর দিলে, ঘটনাস্থলে ফাঁসিদেওয়া থানার পুলিশ পৌঁছায়। এরপরই তাঁকে অবৈধভাবে আন্তরাষ্ট্রীয় সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে প্রবেশের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়।

নাম না প্রকাশের শর্তে গ্রামবাসীদের একজন বলেন, বাংলাদেশে গোরু পাচারের জন্যই ওই ব্যক্তি এদেশে প্রবেশ করেছিল। ফাঁসিদেওয়ার ওই সীমান্ত এলাকা দিয়ে এর আগেও বাংলাদেশি প্রবেশের ঘটনা ঘটেছে। এমনকি, বিগতদিনে এলাকার একাধিক জায়গায় কাঁটাতার কেটে দেওয়ার অভিযোগও ফাঁসিদেওয়া পুলিশের কাছে বিএসএফ-র ৫১ নম্বর ব্যাটালিয়নের তরফে জানানো হয়েছিল। তবে, ভোটের আগে পাচারকারীদের প্রবেশের ঘটনায় আতঙ্কে গ্রামবাসীরা। খবর রয়েছে, নির্বাচনের আগে সীমান্তে টহলরত জওয়ানদের কড়া প্রহরা চলছে। বিএসএফ জওয়ানদের কড়া নজরদারি এড়িয়ে বাংলাদেশি ভারতে প্রবেশের ঘটনায় ব্যপক আতঙ্ক ছাড়িয়েছে। এদিকে, গ্রামবাসীদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী আরও ২ জন বাংলাদেশি ব্যক্তিকে এদিন ভারতে প্রবেশ করতে দেখা গিয়েছে। তারা কোথায় রয়েছে তা নিয়ে তদন্তের দাবিও তোলা হয়েছে। ফাঁসিদেওয়া পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। ওই ব্যক্তিকে ভারতে প্রবেশের জন্য কার মদত রয়েছে, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বাকি ২ বাংলাদেশির খোঁজেও তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

- Advertisement -

ধৃত বাংলাদেশিকে আটক করা মাত্রই গ্রামবাসীদের কাছে স্থানীয় এক ব্যক্তির সাহায্যের কথা কবুল করতে দেখা গিয়েছে। শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা বিজেপি উদ্বাস্তু সেলের কনভেনর প্রণবেশ মণ্ডল বলেন, স্থানীয়রা সজাগ ছিলেন, সে জন্য তাঁদের ধন্যবাদ। তবে, নির্বাচনের আগে সীমান্তরক্ষীদের আরও সজাগ থাকতে হবে। যেখানে আলো নেই সেখানে আরও বেশি নজরদারি করতে হবে। সীমান্তে কড়া পাহারার প্রয়োজন আছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। ফাঁসিদেওয়া সাংগঠনিক ১ নম্বর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মহম্মদ আইনুল হক বলেন, বিএসএফ সীমান্তে কাজ করছে। নির্বাচনের আগে বাংলাদেশি এদেশে প্রবেশ যেমন অন্যায়, তেমনই ঘটনাটি আতঙ্কেরও বটে। সামনে ভোট, তাই আরও বেশি সীমান্তরক্ষী মোতায়েনের দাবি তুলেছেন তিনি। তবে, এই ঘটনায় বিএসএফ-র কোনও আধিকারিকের মন্তব্য পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে, ডিএসপি (গ্রামীণ) অচিন্ত্য গুপ্তকে ফোন করা হলে, তিনি কোনও মন্তব্য করা থেকে নিজেকে বিরত রেখেছেন। শুক্রবার ধৃতকে শিলিগুড়ি মহকুমা আদালতে তোলা হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে।