প্রয়াত সিপিএম নেতার জমি দখলের অভিযোগ কাউন্সিলারের বিরুদ্ধে

175

রায়গঞ্জ: প্রয়াত সিপিএম নেতার জমি দখল করে প্রাচীর ভেঙে জায়গা দখল করার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের এক কাউন্সিলারের বিরুদ্ধে। রায়গঞ্জ শহরের রমেন্দ্রপল্লী এলাকার ঘটনা। ওই জায়গায় দীর্ঘ ৮০ বছর যাবৎ বসবাস করতেন সিপিএম নেতা নিমাই বসাক ও তাঁর স্ত্রী। ২০০৫ সালে সিপিএম পার্টির নামে সেই জায়গা লিখে দেন। তারপর থেকেই জমির খাজনা থেকে শুরু করে যাবতীয় টাকা দিত সিপিএমের জেলা পার্টি অফিস। দীর্ঘ রোগভোগে ২০০৮ সালে তাঁর মৃত্যু হয়। মৃত্যু হয় তাঁর স্ত্রীর ও একমাত্র মেয়েরও। মৃত্যুর আগে তাদের দেখভাল করত সিপিএমের কর্মীরা। সম্প্রতি সেই জায়গায় রায়গঞ্জ পৌরসভার তরফ থেকে ভ্যাট নির্মাণ করা হয়েছে। ভেঙে দেওয়া হয়েছে সীমানা প্রাচীর। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এদিন বিকেল পাঁচটা নাগাদ সিপিএমের তরফে ঘটনাস্থলে বিক্ষোভ দেখায়।

সিপিএমের রায়গঞ্জ এরিয়া কমিটির সম্পাদক তীর্থ দাস বলেন, ‘ওই জমির মালিক ছিলেন আমাদের দলের নেতা নিমাই বসাক। ২০০৫ সালে আমাদের দলের নামে লিখে দেন। তাঁর পরিবারকে দেখভাল করত আমাদের পার্টি এখন আর কেউ নেই। খাজনা থেকে শুরু করে পুরসভার ট্যাক্স সব আমরা দেই। দিন কয়েক আগে তৃণমূলের কাউন্সিলার বরুণ ব্যানার্জি দুজন প্রোমোটার সীমানা প্রাচীর ভেঙে গর্ত করে বড় ইমারত গড়ার চেষ্টা করে। তারই প্রতিবাদে আমরা এদিন রাস্তায় নেমে আন্দোলন করছি। অবিলম্বে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করার পাশাপাশি পুরসভার তরফে যে ভ্যাট সংশ্লিষ্ট জায়গায় তৈরি করা হয়েছে তা না সরালে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। তৃণমূলের কাউন্সিলার বরুণ ব্যানার্জি বলেন, ‘সিপিএম যা অভিযোগ করছে তা ঠিক নয় ওই জমির ওয়ারিশ রয়েছেন, নিমাই বসাকের নাতি। ওই জায়গা সিপিএমের নয়। ওই পরিবারের সঙ্গে কথা বললে সমস্ত কিছু স্পষ্ট হবে।’

- Advertisement -