পুকুর থেকে ব্যক্তির অর্ধনগ্ন মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য

218

ফাঁসিদেওয়া, ১৯ অগাস্টঃ পুকুর থেকে নিখোঁজ ব‍্যক্তির অর্ধনগ্ন মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় খুনের আশঙ্কা। ব্যক্তির শরীরে ক্ষতের চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফাঁসিদেওয়ার ঠাকুরপাড়া এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। বৃহস্পতিবার স্থানীয় ফনি রায়ের পুকুর থেকে হিরণ চন্দ্র মোদক (৫৫) নামে পুরোনো হাটখোলা এলাকার বাসিন্দারা মৃতদেহ জলে ভেসে ওঠে। স্থানীয় সূত্রের খবর, এদিন পুকুরের মালিক গোরু বাঁধতে এসে মৃতদেহটি প্রথম দেখতে পান। খবর পেয়ে ফাঁসিদেওয়া পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পরে, মৃতদেহটি উদ্ধার করে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই, ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি অবিবাহিত ছিলেন। পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গেই থাকতেন। এছাড়া, ফাঁসিদেওয়া বাজার এলাকাতেই তাঁকে ঘোরাঘুরি করতে দেখা যেত বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। অন্যের কাজ করে সামান্য পয়সা পেতেন, তা দিয়েই জীবনযাপন করতেন। পরিবার সূত্রের খবর, চলতি সপ্তাহের মঙ্গলবার থেকে হিরণ বাবু নিখোঁজ ছিলেন। এদিন পুকুরের জলে ক্ষত মৃতদেহ পাওয়া যায়। পুকুরের খুব কাছেই একটি জিন্সের প্যান্ট এবং হাওয়াই চপ্পল উদ্ধার হয়েছে। মৃতদেহটি চিত অবস্থায় দেখা যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা মন্তব্য করেছেন। পচাগলা অবস্থায় মৃতদেহ দেখে এদিন অনেকেই আঁতকে উঠেছেন। গলার কাছে একটি ক্ষত দেখা গিয়েছে। তবে, ডিএসপি (গ্রামীণ) অচিন্ত্য গুপ্ত বলেন, ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ স্পষ্ট হবে। এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়।

- Advertisement -

পুকুরে মালিক তথা প্রথম প্রত্যক্ষদর্শী ফনি রায় বলেন, প্রথমে দেখে মানুষের মৃতদেহ বুঝতে পারিনি। প্রচন্ড দুর্গন্ধ বেরিয়েছিল। সামনে যেতেই বিষয়টি স্পষ্ট হয়। এমন ঘটনায় আমরা শোকস্তব্ধ। মৃতের ব‍্যক্তির দাদা পরিতোষ মোদক বলেন, মঙ্গলবার থেকে তাঁর ভাই নিখোঁজ ছিলেন। কারও সঙ্গে শত্রুতা ছিল কিনা তা বুঝতে পারছি না। অথচ, স্থানীয় থানায় নিখোঁজ সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি কেন সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি। স্থানীয় বাসিন্দা শান্তি দাস, এলাকায় সুপরিচিতি ছিল হিরণের। কিন্তু, কিভাবে এই মৃত্যু তা নিয়ে আমরা সকলেই ধন্দে রয়েছি। রহস্য মৃত্যু বলে মনে করা হচ্ছে। মৃতদেহ উদ্ধারকারী কাশমিরা বলেন, মৃতদেহের গায়ে ক্ষত দেখা গিয়েছে। মৃতদেহটি কয়েকদিন আগের। পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে। একইসঙ্গে, ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে।