লকডাউনে আত্মঘাতী হলেন ভ্যান চালক

306

রায়গঞ্জ, ৩০ এপ্রিলঃ লকডাউনের জেরে রুটিরুজি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেশ কিছুদিন থেকে মানসিক অবসাদে ভোগার পর রায়গঞ্জ থানার মাড়াইকুড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের দাসপাড়া এলাকার ভ্যানচালক আত্মঘাতী হলেন। বৃহস্পতিবার পেশায় ভ্যান চালক নিখিল দাস (৬০) এর নিজের বাড়ির শোয়ার ঘর থেকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার হতেই, এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্তের পর রায়গঞ্জ থানার পুলিশ পরিবারের হাতে মৃতদেহ তুলে দিয়েছেন। রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

পরিবারের দাবি, ভ্যান চালানোর পাশাপাশি নিখিল বাবু বেতের জিনিস তৈরি করতেন। লকডাউনের জেরে সকল কাজই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। ফলে অর্ধাহারেই বৃদ্ধ দম্পতির দিন কাটছিল। সরকারের তরফ থেকে কোনও সাহায্য মেলেনি বলে অভিযোগ। লকডাউনের জেরে রুজিরুটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে এদিন তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য সুনীল হালদার জানিয়েছেন।

- Advertisement -

রায়গঞ্জের বিডিও রাজু লামা জানিয়েছেন, সঠিক কি কারণে ওই ভ্যানচালকের মৃত্যু হয়েছে, সেই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়ার আগে তিনি কোনও মন্তব্য করবেন না বলে জানান। তবে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য থেকে শুরু করে প্রধান প্রত্যেককেই মৃত ভ্যান চালকের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এই লকডাউনের জেরে অভাবের তাড়নায় উত্তর দিনাজপুর জেলায় মোট ৬ জনের মৃত্যু হল। একের পর এক মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ গোটা গ্রাম।