জাতীয় সড়কের ধারে বালির স্তুপ, পথ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন যুবক

938

ফাঁসিদেওয়া, ১ অক্টোবরঃ ট্রাক্টর এবং মোটরবাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষে বাইক চালকের মৃত্যু হল। ঘটনায় বাইক আরোহী যুবক আশঙ্কাজনকভাবে আহত হয়েছেন। এদিকে, দুর্ঘটনার পরই দ্রুতগামী ট্রাক্টরটি এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ফাঁসিদেওয়া ব্লকের কান্তিভিটার বিস্কুট কারখানা সংলগ্ন ৩১ডি নম্বর জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। মৃত বাইক চালক মহম্মদ জাগির (১৯) ব্লকের সুদামগছের বাসিন্দা ছিলেন। খবর পেয়ে ফাঁসিদেওয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাইক চালক এবং বাইক আরোহী সুদামগছের আহত যুবক আকবর আলি (২০) কে উদ্ধার করে। ফাঁসিদেওয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বাইক চালককে মৃত বলে ঘোষণা করেন। অপর যুবককে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পরই তাঁকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে ঘোষপুকুর সলসলাবাড়ি ইস্ট ওয়েস্ট করিডরের কাজ চলছে। সেই কাজের জন্য রাস্তার পাশে সড়ক নির্মাতা সংস্থার তরফে একাধিক জায়গায় বালি জড়ো করে রাখা হয়েছে। ফলে, জাতীয় সড়ক চলতি যানবাহন সমস্যায় পড়ছে। আর এরজেরেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে মৃতের কাকু মহম্মদ আজিদ অভিযোগ করেছেন। তিনি আরও বলেন, যে ট্রাক্টরটির সঙ্গে বাইকের সংঘর্ষ হয়েছে, সেটিও সড়ক নির্মাতা সংস্থারই ছিল। খবর পেয়ে যুবকের পরিবারের সদস্যরা ফাঁসিদেওয়া গ্রামীণ হাসপাতালে ছুঁটে আসেন। এলাকার জনপ্রতিনিধি তথা শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের সদস্য আইনুল হকও হাসপাতালে পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন।

- Advertisement -

আইনুল বাবু জানান, সড়ক নির্মাণকারী সংস্থার উদাসীনতার জন্যই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে কর্তৃপক্ষের নজর দেওয়ার দাবি তুলেছেন তিনি। এদিকে, দুর্ঘটনাগ্রস্থ মোটরবাইকটি পুলিশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গিয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। একটি অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা রুজু করে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। পাশাপাশি, ট্রাক্টরটির খোঁজেও তল্লাশি শুরু করেছে। যদিও, ট্রাক্টরটি সম্পর্কে কিছু জানা সম্ভব হয়নি।