বাইসনের হামলায় আহত এক

59

আলিপুরদুয়ার: বাইসনের হামলায় আহত এক ব্যক্তি সহ জখম ছয়টি গোরু। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকালে চাপড়ের পার ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের পদ্মের পার এলাকায়। স্থানিয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আহত স্বপন দেবনাথ(৫২) আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি বুকে ও হাতে গুরতর আঘাত পান। এলাকায় বাইসন দেখে স্থানিয়রা বনদপ্তরে খবর দেন। কয়েকঘণ্টা এলাকায় তাণ্ডব চালানোর পর বনদপ্তরের ছোড়া ঘুমপাড়ানি গুলিতে কাবু করা হয় বাইসনটিকে। তারপর বনদপ্তরের কর্মীরা বাইসনটিকে উদ্ধার করে দমনপুর(পূর্ব) জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন ওই এলাকায় সকালে প্রাচীর ঘেরা একটি জায়গায় বাইসনটিকে প্রথম দেখা যায়। তবে স্থানীয় বাসিন্দাদের শব্দ পেয়ে এলাকায় ছুটোছুটি করে। প্রথমে দুটি গোরুকে আহত করে। তারপর স্বপন দেবনাথের বাড়ির একটি ঘরে দরজা ভেঙে ঢুকে হামলা চালায়। বাইসনের গুঁতোয় আহত হন তিনি। ঘরের ভিতর জিনিসপত্রের ক্ষতি হয়। তারপর আরেকটি বাড়ির গোয়াল ঘরের পিছনে বাধা গোরুর উপর হামলা চালায় বাইসনটি। গোয়াল ঘরেও ঢুকে তিনটি গোরুর উপর চড়াও হয় বাইসনটি। এক এক করে ছয়টি গোরু আহত হয়েছে এলাকায়।

- Advertisement -

বনদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, রাতের অন্ধকারে বাইসনটি জঙ্গল ছেড়ে লোকালয়ে ঢুকে পরে। লোকালয়ে বাইসনের খবর পেয়ে বনদপ্তরের একাধিক দল সেখানে যায়। তারা একত্রিতভাবে বাইসনটিকে উদ্ধার করে। এতে স্থানীয় বাসিন্দাদের সহযোগিতা নেওয়া হয়। বাইসনটি লোকালয়ে কিভাবে ও কেন গেল তা খোঁজ খবর নিয়ে দেখা হচ্ছে।

বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের(পূর্ব) দমন পুর রেঞ্জার সুজিত বর্মা বলেন, ‘জঙ্গল থেকে প্রায় ৮-৯ কিলোমিটার দূরে লোকালয়ে বাইসনের খবর পেয়ে বনদপ্তরের কর্মীরা ঘটনাস্থলে যান। তারপর বাইসনটিকে উদ্ধার করা হয়। বাইসনটি সুস্থ থাকায় জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তরা সরকারি নিয়ম নির্দেশিকা মেনে ক্ষতিপূরণ পাবেন।

নন্দন সাহা নামে স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, ‘সাড়ে ৫টা নাগাদ গোয়াল ঘরে ঢুকে তিনটি গোরুর উপর হামলা চালায় বাইসনটি। এতে তিনটি গোরু গুরুতর জখম হয়েছে।’ কল্পনা দেবনাথ বলেন, ‘বাইসনের জন্য আমার স্বামী স্বপন দেবনাথ ও কয়েকজন ঘরেই ছিলেন। কিন্তু বাইসন ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে পড়ে। বাইসনটি ঘরের ভিতরে অনেক জিনিস পত্র ভেঙে ফেলে।’