বিজেপি নেতার ওপর গুলি হামলা, গ্রেপ্তার ১

141

পুরাতন মালদা ও গাজোল: বিজেপির বুথ সভাপতিকে লক্ষ্য করে গুলি চালানোর ঘটনার কিনারা করল পুলিশ। ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এক দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করল গাজোল থানার পুলিশ। যদিও অপর এক দুষ্কৃতী পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। তার খোঁজে চিরুনি তল্লাশি শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টা নাগাদ পুরাতন মালদার ভাবুক গ্রাম পঞ্চায়েতের রঞ্জকালী এলাকায় বাড়ির সামনে রাস্তায় বাইক নিয়ে দুই অপরিচিত যুবককে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন বিজেপির বুথ সভাপতি প্রভাত টুডু। একটি বাইকে নম্বরপ্লেট দেখতে না পেয়ে সন্দেহ হতেই দুই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করতে যান প্রভাতবাবু। সেই সময় হঠাৎই এক যুবক প্রভাতবাবুর মাথা লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে গাজোলের দিকে পালিয়ে যায়। যদিও গুলি প্রভাতবাবুর মাথা ছুঁয়ে বেরিয়ে যায়। এরপরই বাড়ির লোকজন সহ অন্য বাসিন্দারা প্রভাতবাবুকে উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যান। ঘটনার পরই তদন্তে নামে পুলিশ।

- Advertisement -

অন্যদিকে, গাজোলে দুই যুবককে উদ্দেশ্যহীনভাবে ঘুরতে দেখে তাদের আটকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে দুই সিভিক ভলান্টিয়ার। দুই যুবকের কথাবার্তায় অসংগতি পেলে দুজনকেই আটক করা হয়। তবে তাদের মধ্যে একজন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। ঘটনাস্থলে গাজোল থানার পুলিশ এসে এক যুবককে থানায় নিয়ে যায়। ওই যুবক কুখ্যাত সমাজ বিরোধী হিসেবে পরিচিত। বিজেপি নেতার ওপর গুলি চালানোর ঘটনার সঙ্গে ওই যুবক জড়িত রয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। ধৃতের নাম আলিম খান (২২)। বাড়ি কালিয়াচকের নারায়ণপুর এলাকায়। ধৃতের কাছ থেকে একটি অত্যাধুনিক সেভেন এমএম পিস্তল ও ছয় রাউন্ড কার্তুজ, দুটি বাইক উদ্ধার হয়েছে। এরমধ্যে একটি বাইক নম্বরবিহীন। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এই ঘটনায় দুষ্কৃতীকে ধরতে সক্ষম হওয়ায় দুই সিভিক ভলান্টিয়ার শিশির কুমার রায় এবং মনোজ সরকারকে পুরস্কার দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।