শিলিগুড়িতে আরও এক করোনা আক্রান্তের মৃত্যু, শহরে দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ

411
ছবি: সূত্রধর

শিলিগুড়ি: করোনা সংক্রামিত হয়ে শিলিগুড়িতে আরও একজনের মৃত্যু হল। বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাটিগাড়ার কদমতলার বাসিন্দা এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে, বিজেপির সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক সহ শিলিগুড়ি পুরনিগম এলাকায় নতুন করে নয়জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

পাশাপাশি উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজের একজন বড়বাবুও এদিন করোনা সংক্রামিত হয়ে কোভিড হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। অন্যদিকে, নকশালবাড়ি এবং খড়িবাড়িতে একজন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

- Advertisement -

মেডিকেল কলেজ সূত্রের খবর, শ্বাসকষ্ট সহ বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কদমতলার বাসিন্দা জয়ন্তী সাহা (৪৮) বুধবার রাতে মেডিকেলে ভর্তি হন। বৃহস্পতিবার সকালে তাঁর মৃত্যু। এরপরেই তাঁর লালার নমুনা পরীক্ষার জন্য মেডিকেলের ভিআরডিএলে পাঠানো হয়। রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরেই ওই মহিলার দেহ সরকারিভাবে সৎকারের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

অন্যদিকে, মেডিকেলের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি ভক্তিনগর এলাকার এক ব্যক্তির নমুনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। পাশাপাশি আইসোলেশনেই চিকিৎসাধীন পুরনিগমের ২ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা এক মহিলার রিপোর্টও পজিটিভ এসেছে। এখানে চিকিৎসাধীন নকশালবাড়ির অন্য এক ব্যক্তির লালার নমুনার রিপোর্টও পজিটিভ আসে। রাতেই তাঁদের কোভিড হাসপাতালে স্থানান্তর করা শুরু হয়।

বিজেপির শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক রাজু সাহা করোনা সংক্রামিত হয়েছেন। দলের শিলিগুড়ি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি প্রবীণ আগরওয়াল বলেন, ‘৭ জুন রাজুবাবুর লালার নমুনা নেওয়া হয়েছিল। তিনি নিয়ম মেনে এক সপ্তাহ হোম কোয়ারান্টিনে ছিলেন। তারপর ১৫ জুন থেকে তিনি দলের কর্মসূচীতে অংশ নিচ্ছেন। কিন্তু লালার নমুনা নেওয়ার ১০ দিন পরে বুধবার রাতে তাঁরা লালার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বলে আমরা শুনেছি। কিন্তু তাঁকে কোথায় রাখা হয়েছে সেব্যাপারে কিছু জানি না।’

এদিন শিলিগুড়ির ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন, ৪, ৮, ১৪,  ১৫, ২০, ৪২ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। পুরনিগম সূত্রের খবর, ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের ওই দু’জন নিয়ন্ত্রিত বাজার থেকেই সংক্রামিত হয়েছেন। প্রাথমিকভাবে এমনটাই মনে করা হচ্ছে। বাকিদের সংক্রমণের উৎস খোঁজা হচ্ছে।