মাল শহরে করোনা সংক্রমিত আরও এক

507

মালবাজার: মাল শহরের আরও একজনের শরীরে করোনা সংক্রমনের খবর মিলল। এই ব্যক্তিও ভিন রাজ্য থেকে ফিরেছিলেন। তিনি মাল পরিমল মিত্র স্মৃতি মহাবিদ্যালয় কোয়ারান্টিন সেন্টারে ছিলেন। মাল পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারপার্সন স্বপন সাহা বলেন, ওই ব্যক্তির বাড়ি মাল শহরের পানোয়ার বস্তি এলাকায়। ভিন রাজ্য থেকে ফিরে আসার পর ওই ব্যক্তিকে সরাসরি কোয়ারান্টিন কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। এদিন তার করোনা সংক্রমণের খবর আসার পর তাকে কোয়ারান্টিন কেন্দ্র থেকেই সরাসরি জলপাইগুড়ি কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

স্বপন বাবু বলেন, রাজ্য প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ সহ সমস্ত মহলেই করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে যাবতীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। আমরা কাউকে গুজব না ছড়ানোর আবেদন করেছি। উল্লেখ্য এই নিয়ে মাল শহরের চারজন করোনা সংক্রমিত হলেন। এর পূর্বে একজন গৃহবধূ ও ওড়িশা থেকে ফিরে আসা এক মহিলা স্বাস্থ্যকর্মী করোনা সংক্রমিত হয়েছিলেন। ভিন রাজ্য থেকে ফিরে আসা আর এক মাঝ বয়সী ব্যক্তিও করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। তবে তিনি কোয়ারান্টিন কেন্দ্র থেকে বের হয়ে পাথরঝোরা চা-বাগানে ছিলেন। তারা বর্তমানে জলপাইগুড়ি কোভিড হাসপাতালে আছেন। তারা বর্তমানে সুস্থ রয়েছেন।

- Advertisement -

এদিকে মাল ব্লক প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে মাল পরিমল মিত্র স্মৃতি মহাবিদ্যালয়ে থাকা মাল ব্লকের গ্রামীণ এলাকার আরও দুজনের করোনা সংক্রমনের খবর আসে। এই দুজনের বাড়ি ওদলাবাড়ি পাথরঝোড়া এবং মানাবাড়ি এলাকায়। এরাও ভিন রাজ্য থেকে ফিরে আসার পর কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রেই ছিলেন। এদেরকেও স্বাস্থ্য বিভাগ জলপাইগুড়ির কোভিড হাসপাতালে পাঠানোর বন্দোবস্ত করে। অন্যদিকে মাল গ্রামীন ব্লকের এলাকার আরও দু’জনকে কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এরমধ্যে একজন প্রবীণ ব্যক্তি ও অন্যজন ১৫ বছর বয়সী। গত চার জুন মালবাজারের হাসপাতালের মাধ্যমে এদের লালা রস সংগ্রহ করে কোভিড ১৯ পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। বুধবার রিপোর্ট পরীক্ষা ফলাফল পজিটিভ হয়। এদিকে ব্লক স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ওয়াশাবাড়ি বাগড়াকোট, ডামডিম এলাকার তিনজন করোনা সংক্রমিত ব্যক্তির করোনা ব্যধিকে জয়  করেছেন। তারা এখন পুরোপুরি সুস্থ। তাদের কোভিড হাসপাতাল থেকে ছাড়া হচ্ছে। একে একে বাড়িতে পৌঁছচ্ছেন তাঁরা।