মোদিকে দায়ী করে ফের আত্মহত্যা, কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে টুইট রাহুলের

194

নয়াদিল্লি: একদিকে হাড় কাঁপানো শীতকে উপেক্ষা করে কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনের তীব্রতা ক্রমশ বাড়ছে। অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় সরকারের অনড় অবস্থানের প্রতিবাদে আত্মহত্যার ঘটনাও ঘটছে একের পর এক। সবমিলিয়ে মঙ্গলবারের বৈঠকের আগে কেন্দ্রীয় সরকারের অস্বস্তি ক্রমেই বাড়িয়ে তুলছেন আন্দোলনকারীরা।

রবিবার দিল্লির টিকরি সীমান্তে এক আন্দোলনকারী তথা পঞ্জাবের আইনজীবী বিষ পান করে আত্মঘাতী হন। মৃতের নাম অমরজিত সিং। তিনি পঞ্জাবের জালালাবাদের বাসিন্দা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে রোহতাকের হাসপাতালে নিয়ে য়াওয়া হলে চিকিতসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। মৃতদেহের কাছ থেকে যে সুইসাইড নোট পাওয়া গিয়েছে, তাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে। তাতে লেখা হয়েছে, কৃষকদের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে তিনি প্রাণ দিলেন। ৩ কৃষি আইন তৈরি করে কেন্দ্রীয় সরকার সাধারণ মানুষ এবং কৃষকদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। এর ফলে কর্পোরেটরা উপকৃত হবেন। কৃষকরা আরও বঞ্চিত হবেন।

- Advertisement -

সুইসাইড নোটের প্রতিটি ছত্রে প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করেছেন অমরজিত। কৃষি আইন তৈরি করে কেন্দ্রীয় সরকার কর্পোরেটের হাত শক্ত করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তবে ওই সুইসাইড নোটটি ধন্দে রয়েছে পুলিশ। কারণ সেটিতে গত ১৮ ডিসেম্বরের তারিখ লেখা রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আপাতত তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এনিয়ে কৃষক আন্দোলন চলাকালীন তিনটি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটল।

এদিকে, কৃষি আইন নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণ অব্যাহত রেখেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি। আন্দোলনকারীদের লড়াইকে সমর্থন জানিয়ে এদিন হিন্দি ভাষার কবি দ্বারিকপ্রসাহ মাহেশ্বরীর একটি কবিতার লাইন টুইট করেন তিনি। বাংলায় তার তর্জমা করলে দাঁড়ায়, হে বীর, তুমি এগিয়ে চলো। ধৈর্য ধরে এগিয়ে চলো। জলকামানের তোড়েও তুমি থেকো নির্ভীক। দৃঢ়ভাবে এগিয়ে চলো অন্নদাতা।