গোরুবোঝাই মিনি ট্রাকের ধাক্কায় ছাত্রের মৃত্যু জোড়পাকড়িতে

492

ময়নাগুড়ি, ৯ ফেব্রুয়ারিঃ রবিবার গোরুবোঝাই মিনিট্রাকের ধাক্কায় অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল ময়নাগুড়ির জোড়পাকড়ির পালের বাড়ি এলাকায়। উত্তেজিত জনতা দুটি গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। আগুন নেভাতে এলে তাড়া করা হয় দমকলকর্মীদের। পরে পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মৃত ছাত্রের নাম সন্তোষ রায় (১৩)। তার বাড়ি পদমতির কামারটাড়ি এলাকায়। গাড়ির ধাক্কায় গুরুতর জখম হয়েছে সুদীপ রায় নামে আরও এক ছাত্র।

এদিন সকালে পালের বাড়ি এলাকায় টিউশনের জন্য আসছিল জোড়পাকড়ি আবদুল গনি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র সন্তোষ ও সুদীপ। সেই সময় একটি গোরুবোঝাই মিনিট্রাক দুজনকে ধাক্কা মেরে পাশের নয়ানজুলিতে পড়ে যায়। স্থানীয়রা ড্রাইভার ও খালাসিকে গাড়ি থেকে বের করার পর তারা চম্পট দেয়। পরে গাড়ির নীচ থেকে দুই ছাত্রকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় সন্তোষের। এরপরই উত্তেজিত জনতা ওই মিনিট্রাক ও আরেকটি গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়। তাঁতাদের অভিযোগ, প্রতিদিন ওই এলাকা দিয়ে বেআইনিভাবে গোরু নিয়ে যাওয়া হয়। প্রশাসনকে বলার পরেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। ময়নাগুড়ি থানার পুলিশ আধিকারিকরা এলে তাঁদেরও বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়। স্থানীয়দের অভিযোগ, একজন সিভিক ভলান্টিয়ারকে র‍্যাফের পোশাক পড়িয়ে থানা থেকে পাঠানো হয়েছিল। পরে উত্তেজনা বাড়তে থাকায় জলপাইগুড়ির ডিএসপি (ক্রাইম) বিক্রমজিত্ লামা বিশাল পুলিশবাহিনী নিয়ে এলাকায় যান। এরপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

- Advertisement -