গ্রণপ্রহারে পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় ধৃত এক

122

হরিশ্চন্দ্রপুর: গণপ্রহারে পরিযায়ী শ্রমিক মৃত্যুর ঘটনায় ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে দায়ের হয়েছে অভিযোগ। তদন্তে নেমে ইতিমধ্যে এক মহিলাকে গ্রেপ্তার করেছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। ধৃত সামিনা খাতুন। সোমবার ধৃতকে আদালতে পেশ করা হলে তদন্তের স্বার্থে বিচারক পাঁচ দিনের পুলিশ রিমান্ডের নির্দেশ দেন। অন্য়দিকে, পরিযায়ী শ্রমিক মৃত্য়ুর ঘটনায় এখনও প্রায় শুনসান মালিওর গ্রাম। প্রায় বন্ধ দোকানপাট। চলছে পুলিশি টহলদারি।

জানা গিয়েছে, মোবাইল চোর সন্দেহে পরিযায়ী শ্রমিক প্রতাপ মণ্ডলের হাত পা বেঁধে বেধরক মারধর করা হয়। ঘটনায় মৃত্যু হয় তাঁর। ঘটনার প্রেক্ষিতে একাংশ স্থানীয়র অভিযোগ, মিথ্যে বদনাম দিয়ে প্রতাপ মণ্ডলকে পরিকল্পিতভাবে গণপিটুনি দিয়ে খুন করা হয়েছে। একাংশ স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, প্রতাপ মণ্ডলের নামে অতীতে কোনও অপরাধের অভিযোগ নেই। অন্যদিকে পরিবারে অভিযোগ, প্রতাপকে ফোন করে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করা হয়েছে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে চোর অপবাদ দেওয়া হয়। স্থানীয় সূত্রে খবর, বন্ধুর সঙ্গে বাজিতে হেরে গিয়ে টাকা দিতে পারছিলেন না ওই পরিযায়ী শ্রমিক। সম্ভবত তা আদায়ের জন্যই পরিকল্পনা করে ডাকা হয়েছিল। পরবর্তীতে চোর অপবাদ দেওয়া হয়।

- Advertisement -

হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস জানিয়েছেন, মৃতের মোবাইল খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চলছে।