বেসরকারি স্কুলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অনলাইন ক্লাস চলছে সরকারি স্কুলেও

428

রায়গঞ্জ:‌ বেসরকারি স্কুলগুলির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সরকারি স্কুলেও চলছে অনলাইনে পঠনপাঠন। রায়গঞ্জ শহরের বাণী মন্দির প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকারা নিজেদের উদ্যোগে অনলাইনে ক্লাস ও পরীক্ষা নিচ্ছে। দীর্ঘ দেড় বছরের বেশি সময় ধরে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় অনেকের পড়াশোনা থেকে বিচ্যুত ঘটতে পারে সেকারণে শিক্ষক-শিক্ষিকারা প্রি-প্রাইমারি থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত অনলাইনে পঠনপাঠন চালাচ্ছেন। শুধুমাত্র দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয় অনলাইনে ক্লাস ও পরীক্ষা গ্রহণ চলছে। একটি বাণী মন্দির, অন্যটি রায়গঞ্জ গার্লস প্রাথমিক বিদ্যালয়। করোনা অতিমারির মধ্যেও শিক্ষক-শিক্ষিকারা পঠনপাঠন চালিয়ে যাওয়ায় খুশি অভিভাবকেরা।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষিকা দীপান্বিতা চক্রবর্তী গুহ বলেন, গত ডিসেম্বর মাসে আমরা সিদ্ধান্ত নেই পঠনপাঠন শুরু করতে হবে। এরপর পড়ুয়াদের গ্রুপ করে অনলাইনের মাধ্যমে পঠনপাঠন শুরু করি। গত ২ জুলাই থেকে ৬ জুলাই আমরা পরীক্ষা নিয়েছি। অভিভাবকেরা পরীক্ষার উত্তরপত্র জমা দিয়ে যাচ্ছেন স্কুলে এসে। স্বাভাবিক অবস্থা না ফেরা পর্যন্ত চলবে। স্কুলের উদ্যোগে খুশি অভিভাবকেরা।

- Advertisement -

প্রদীপরায় চৌধুরী নামে এক অভিভাবক জানান, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনলাইনে পঠনপাঠন হবে ভাবতে পারছি না। কিন্তু এই স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। অভিভাবিকা রিয়া পাল জানান, বিদ্যালয়ে অনলাইনে ক্লাস চালু থাকায় শিশুদের খুবই সুবিধা হচ্ছে। সরকারি স্কুলে এভাবে পড়াশোনা হওয়ায় ভালো লাগছে।

বিদ্যালয় পরিদর্শক দীপককুমার ভক্ত জানান, অনলাইনে পঠনপাঠন চালিয়ে যাওয়ার জন্য স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকাদের সাধুবাদ জানাই। রায়গঞ্জ গার্লস প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষক গৌরাঙ্গ চৌহান বলেন, ‘আজ অনলাইনে দ্বিতীয় শ্রেণীর ক্লাস নেবেন শ্রেণী শিক্ষিকা কৃতি মল্লিক ও জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক। পাঠ্যপুস্তকের পাশাপাশি সব ক্লাসে আর্টের ক্লাস নিচ্ছেন শিক্ষক অর্জুন খটিক৷ করোনার তৃতীয় ঢেউ থেকে শিশুদের সুস্থ রাখার জন্য সব ক্লাসে অনলাইন ব্যায়াম, যোগাসন ও শরীর চর্চার ক্লাসও করানো হবে।’