কৃষি ও প্রকৃতির কল্যাণে শান্তি যজ্ঞের আয়োজন 

118

রাঙ্গালিবাজনা: কৃষিতে বাড়ছে রাসায়নিক সার প্রয়োগের মাত্রা। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে রোগব্যাধি। কৃষকরা জানেন না তাঁরা কাদের জন্য খাদ্য উৎপাদন করছেন। আর উৎপাদিত ফসল যারা গ্রহণ করছেন কৃষকদের সাথে তাদের কোনো যোগাযোগ নেই। তাই উভয় পক্ষের মধ্যে মেলবন্ধনের সেতু গড়তে বৈদিক রীতিতে যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজন করা হল শনিবার। আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট থানার ভগতপাড়ার জনজাতি সেবাশ্রমে আয়োজিত যজ্ঞানুষ্ঠানের ২৭টি কুন্ডে এদিন ১০৮টি পরিবার আহুতি দেয়।

আয়োজক সংস্থা জনজাতি সার্বিক গ্রাম বিকাশ ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক দীপক ঘোষ জানান, অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৫০ শতাংশই ছিল কৃষক পরিবারের। বৈদিক পরম্পরা মন্ত্রের মাধ্যমে যজ্ঞের আয়োজন করা হয়। বেদের নির্দেশানুসারে কৃষির স্থান সর্বোচ্চ, কৃষকদের স্থান সর্বশ্রেষ্ঠ। কিন্তু এখন কৃষিতে রাসায়নিক সারের ব্যবহার বেড়েছে, কৃষকদের মর্যাদা কমেছে। ফসলের বীজ দেশের বাইরে চলে যাচ্ছে। কৃষকদের কাছ থেকে খাদ্য গ্রহণকারীরা সরাসরি ফসল কিনে নিলে কৃষকদের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো হবে। খাদ্য উৎপাদক ও গ্রহণকারীর মধ্যে মেলবন্ধনের সেতু গড়া প্রয়োজন। আর মেলবন্ধন হতে পারে আধ্যাত্মিক চেতনার উন্মেষের মাধ্যমে। চেতনার উন্মেষ ঘটাতেই যজ্ঞানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

- Advertisement -