প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে মাধ্যমিকে নজরকাড়া ফল ফালাকাটার নিলোত্তমের

322

সুকমল ঘোষ, ফালাকাটা: সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত। একা চলাফেরা করতে পারেনা। কথা বলাতেও অস্পষ্টতা রয়েছে৷ ১০০ শতাংশই প্রতিবন্ধকতা তার। এমনই অসম লড়াইয়ে প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে মাধ্যমিকে সবাইকে চমকে দিয়েছে ফালাকাটা হাইস্কুলের নিলোত্তম সরকার। মাধ্যমিকে তার প্রাপ্ত নম্বর ৬২২। শহরের বাবুপাড়ার বাসিন্দা নিলোত্তম। পরীক্ষার আগে দুরারোগ্য ক্যান্সারে আক্রান্ত মায়ের মৃত্যু হয়েছে। একদিকে প্রতিবন্ধকতা অন্য দিকে মায়ের মৃত্যু শোক সামলেও নজরকাড়া ফল করেছে নিলোত্তম। তার ওই সাফল্যে খুশী ফালাকাটা হাইস্কুলের সকল ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক শিক্ষিকা সহ এলাকার বাসিন্দারা৷

বিভিন্ন বিষয়ে নিলোত্তমের প্রাপ্ত নম্বর যথাক্রমে বাংলা ৮০, ইংরেজী ৯১,অংক ৯৮, ভৌত বিজ্ঞান ৮৬, জীবন বিজ্ঞান ৯০, ইতিহাস ৯০ এবং ভূগোলে ৮৭। বাবা উত্তম সরকার বাড়িতেই সিমেন্টের রিং ও খুটি তৈরীর ব্যবসা করেন।একমাত্র ছেলে নিলোত্তমকে তিনিই স্কুটিতে চাপিয়ে স্কুলে ও টিউশন পড়াতে নিয়ে যেতেন। পরীক্ষায় ছেলের সাফল্যে তিনি নিজেও খুশী উত্তমবাবু। কিন্তু একটাই আফশোষ ওর মা এই রেজাল্ট দেখে যেতে পারলেন না। নিজে লিখলে হাতের লেখা অতটা পরিষ্কার হয়না বলে একজন রাইটারের সহায়তা নিয়েই পরীক্ষা দিয়েছে সে।

- Advertisement -

নিলোত্তমের কথায়, পড়াশোনা ছাড়াও সে দাবা খেলতে ভালোবাসে। গোয়েন্দা গল্প পড়াও তার নেশা। ভালো দাবার খেলার জন্য ব্লক ও জেলা স্তরের বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় মিলেছে নানা পুরষ্কার। বাবা-মা শিক্ষক শিক্ষিকা ও সহপাঠী সকলেই পড়াশোনায় আমাকে উৎসাহ জুগিয়েছে৷ শারীরিক সমস্যাটা এখন আর সমস্যা বলে মনে হয়না আমার কাছে। একাদশ শ্রেনীতে নিজের স্কুলেই বিজ্ঞান বিভাগে ভরতি হব। ভালো পড়াশোনা চালিয়ে আগামীদিনে ডাক্তার হতে চাই। ফালাকাটা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ইন্দজিৎ রক্ষিত বলেন, ‘ক্লাসে পড়াশোনায় খুবই মনোযোগী নিলোত্তম। ওর অসম্ভব মনের জোর রয়েছে। আমরা ভীষন খুশী। আশা করছি ভবিষ্যতে ও আরও অনেক বড় সাফল্য পাবে।’