১ টাকায় মিলবে অক্সিজেন-অ্যাম্বুল্যান্স, বাড়ি পৌঁছোবে এক ফোনেই

116

সিউড়ি: শুধুমাত্র একটি ফোন। তারপরেই আপনার বাড়িতে পৌঁছে যাবে মহার্ঘ্য অক্সিজেন সিলিন্ডার। এই অসাধ্য সাধন করেছে বাংলা সংস্কৃতি মঞ্চ নামে একটি সংগঠন। প্রয়োজনে পৌঁছে যাবে অ্যাম্বুল্যান্সও। দিতে হবে সেই মাত্র এক টাকা।

রাজ্যজুড়ে চলছে অক্সিজেনের হাহাকার। সেই তালিকায় নাম রয়েছে বীরভূমেরও। অনেকে করোনা রোগীর পরিবার বাড়িতেই চিকিৎসা চালাতে চাইছেন। কিন্তু অক্সিজেনের অভাব রয়েছে। আবার কেউ কেউ হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে চাইলেও মিলছে না অ্যাম্বুল্যান্স। এই সমস্যার কথা মাথায় রেখেই এগিয়ে এসেছে বাংলা সংস্কৃতি মঞ্চ। বীরভূমের রামপুরহাট, মুরারই, ময়ূরেশ্বর, মহম্মদবাজার, সিউড়ি ও বোলপুরকে কেন্দ্র করে এই পরিষেবা চালু করেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে সদস্যদের ফোন নম্বর। এমনকি গ্রামে গ্রামে মাইকের মাধ্যমে প্রচারও শুরু করেছে ওই সংগঠন। ওই নম্বরে ফোন করলেই পৌঁছে যাবে আপনার প্রয়োজনীয় অ্যাম্বুল্যান্স কিংবা অক্সিজেন।

- Advertisement -

সংগঠনের রাজ্য সভাপতি সামিরুল ইসলাম বলেন, ‘অক্সিজেনের ব্যবস্থা আগেই করেছি। মাঠেঘাটে কাজ করতে গিয়ে অ্যাম্বুল্যান্সের অভাব বোধ করছিলাম। বিষয়টি রাজসভার সাংসদ দোলা সেনকে জানাই। এরপর তিনিই অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা করে দেন। তবে এর পিছনে প্রাক্তন মন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসু’রও অবদান রয়েছে যথেষ্ট। সেই অ্যাম্বুল্যান্স সোমবার থেকে রাস্তায় নামালাম। দুঃস্থ মানুষের থেকে কোনও পয়সা নেওয়া হবে না। যদি কোনও সহৃদয় ব্যক্তি গাড়ির তেল কিংবা মেরামতের খরচ দিতে আগ্রহী হন তাহলে তা সাদরে গ্রহণ করা হবে।’

শুধু অক্সিজেন বা অ্যাম্বুল্যান্স নয়, করোনা আক্রান্তদের বাড়িতে প্রয়োজনীয় ওষুধ পৌঁছে দিচ্ছেন সংগঠনের সদস্যরা। কিছু কিছু পরিবারে রান্না করা খাবার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে সংগঠনের তরফে। এছাড়া গ্রামে গ্রামে মাইক দিয়ে করোনা নিয়ে সচেতন করা হচ্ছে। পথ চলতি মানুষের মুখে মাস্ক পরিয়ে দিচ্ছেন। সরকারের আংশিক লকডাউন মেনে চলার জন্য মানুষকে অবহিত করছেন। সামিরুল বলেন, ‘এখনও অনেক মানুষ সচেতনতার অভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তাঁদের সচেতন করার উদ্যোগ নিয়েছি। গোটা জেলাতেই আমাদের সংগঠন রয়েছে। ফলে সর্বত্র আমাদের সদস্যরা প্রচার চালাচ্ছেন।’