নির্বাসন স্থগিত, বিরাটদের বিরুদ্ধে রবিনসনও

লন্ডন : ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের বাইশ গজি যুদ্ধের আলোচনায় ঢুকে পড়লেন ওলি রবিনসনও। নবাগত ফাস্টবোলারের কেরিয়ারের কথা ভেবে এদিন আট ম্যাচের নির্বাসন শর্তসাপেক্ষে তুলে নিল ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। ফলে ৪ অগাস্ট ট্রেন্টব্রিজে শুরু ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে খেলার পথে আর বাঁধা থাকল না রবিনসনের।

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে গত সিরিজে লর্ডসে টেস্ট অভিষেক। ম্যাচে সাত উইকেটের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ ৪২ রানের ইনিংসও খেলেন সাসেক্সের ফাস্টবোলার। কিন্তু স্বপ্নের অভিষেকের মাঝে তাড়া করে ৮-৯ বছর আগের পুরোনো টুইট বিতর্ক। ২০১২-১৩-র মধ্যে এশীয় ও নারীদের সম্পর্কে বর্ণ এবং লিঙ্গবৈষম্যমূলক আপত্তিকর টুইট করেছিলেন। যা সামনে আসতে সমালোচনার জেরে নির্বাসনের পদক্ষেপ নেয় ইসিবি।

- Advertisement -

তিন ম্যাচের পরই (একটা টেস্ট ও দুটি সাসেক্সের কাউন্টি ম্যাচ) রবিনসনের ওপর শাস্তি উঠে গেল। ভারতীয় মুদ্রায় পৌনে চার লাখ টাকা আর্থিক জরিমানা গুনতে হয়েছে বছর সাতাশের ফাস্টবোলারকে। নির্বাসন-মুক্তির ফলে, ভারত সিরিজের দলে রবিনসনের প্রত্যাবর্তন নিশ্চিত। জোফ্রা আর্চারের অনুপস্থিতিতে রবিনসনকে পাওয়া স্বস্তি দেবে রুটদের।

শর্তসাপেক্ষে বছর দুয়েকের জন্য শাস্তি স্থগিত রাখা হল। এইসময়ে ভুলের পুনরাবৃত্তি না করলে পুরোপুরি মুক্তি। প্রতিক্রিয়া রবিনসন এদিন জানিয়েছেন, আমার পুরোনো টুইট কাউকে আঘাত করে থাকলে, তার জন্য আমি আবারও ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। এখন সামনের দিকে তাকাতে চাই।

অন্যদিকে, দ্য হান্ড্রেড থেকে নাম তুলে নেওয়া বিদেশী ক্রিকেটারের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। এরমধ্যে অস্ট্রেলিয়ান তারকার সংখ্যাই বেশি। ইতিমধ্যেই নাম প্রত্যাহার করেছেন ডেভিড ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়ে, অ্যারন ফিঞ্চ, অ্যাডাম জাম্পারা। পাশাপাশি নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসনও খেলতে রাজি নন।