দাউদ করাচিতেই, চাপে পড়ে স্বীকার করল পাকিস্তান

1342

ইসলামাবাদ: দাউদ ইব্রাহিম করাচিতে রয়েছেন বলে অবশেষে স্বীকার করল পাকিস্তান। ভারত দীর্ঘদিন ধরেই এই দাবি জানিয়ে আসছিল। কিন্তু পাকিস্তান তা কখনওই স্বীকার করেনি। শনিবার পাকিস্তান মেনে নিয়েছে যে, দাউদ ইব্রাহিম করাচিতেই রয়েছেন। এটাকে ভারতের বড়সড় কূটনৈতিক জয় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ১৯৯৩ সালে মুম্বইয়ে সিরিয়াল ব্লাস্টের ঘটনার মূল ষড়যন্ত্রী হলেন দাউদ। ১৯৯৩ সালের ১২ মার্চ মুম্বইয়ে পরপর ১২টি বোমা বিস্ফোরণ হয়। ঘটনায় ২৫৭ জনের মৃত্যু হয়। আহত হন প্রায় ১৪০০ জন। দাউদকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য একাধিকবার দাবি জানানো হলেও পাকিস্তান তাতে কর্ণপাত করেনি।

প্যারিসের ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স (এফএটিএফ) ২০১৮ সালের জুন মাসে পাকিস্তানকে ধূসর তালিকার অন্তর্ভূক্ত করেছিল। পাকিস্তানকে ২০১৯ এর ডিসেম্বরের মধ্যে সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। তবে করোনার জন্য সেই সময়সীমা পরে বাড়ানো হয়।

- Advertisement -

সেইমতো চলতি বছরের ১৮ অগাস্ট পাক সরকারের তরফে দুটি নির্দেশিকা জারি করা হয়। প্রথম নির্দেশিকায় ৮৮টি সন্ত্রাসবাদী ও সন্ত্রাসে মদত দেওয়া সংগঠনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়। যার মধ্যে ২৬/১১ মুম্বই হামলার মূল ষড়যন্ত্রী ও জামাত উদ দাওয়া প্রধান হাফিজ সৈয়দ, জইশ ই মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজাহার, আন্ডার ওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের নাম রয়েছে। দ্বিতীয় নির্দেশিকায় তালিবান ও হাক্কানি নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

পাকিস্তানের তরফে জানানো হয়েছে, সন্ত্রাসবাদীদের যাবতীয় সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত ও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করা হবে। এদিকে, পাক সরকারের তালিকা অনুযায়ী, দাউদের বর্তমান ঠিকানা হোয়াইট হাউজ, করাচি।