সীমান্তে ফের গুলিবর্ষণ পাক সেনার

369
প্রতীকী।

অনলাইন ডেস্ক: বিনা প্ররোচনায় সীমান্তে ফের গোলাগুলি পাকিস্তানের। শুক্রবার বিকেলে জম্মু-কাশ্মীরের পুঞ্চ জেলায় নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর গুলি চালিয়ে ফের উত্তেজনার সৃষ্টি করে পাক সেনা। মর্টার শেল ছাড়াও ছোট অস্ত্র থেকে গুলি ছোঁড়া হয়। ভারতীয় সেনা সূত্রে খবর, সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে শুক্রবার বিকেল ৪টে ৩০ নাগাদ বালাকোট সেক্টরে গোলাগুলি ছুড়েছে পাকিস্তান। ভারতীয় সেনাও জবাব দেয়। 

- Advertisement -

এদিকে বুধবার জঙ্গি দমনে ফের বড়সড় সাফল্য পেয়েছে সেনা। জম্মু ও কাশ্মীরের বাটামালো এলাকায় জঙ্গিদের লুকিয়ে থাকার খবর পেয়ে বুধবার গভীর রাতে অভিযান চালায় সেনা। সেই সময় জওয়ানদের লক্ষ্য করে জঙ্গিরা গুলি চালাতে শুরু করলে পালটা জবাব দেয় নিরাপত্তা বাহিনীও। গুলির লড়াইয়ে তিন জঙ্গি নিকেশ হয়। মৃত্যু হয় স্থানীয় এক মহিলারও। জখম হয়েছেন এক অফিসার সহ দু’জন সিআরপিএফ কর্মীও।

অন্যদিকে বুধবারই জম্মু-কাশ্মীরের বারামুলায় অভিযান চালিয়ে প্রচুর গোলাবারুদ উদ্ধার করে নিরাপত্তা বাহিনী। ২ জনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। কাশ্মীর পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার তাদের কাছে জঙ্গি কার্যকলাপের খবর আসে। সেইমত ভারতীয় সেনা, সিআরপিএফ ও বারামুলা পুলিশের তরফে বিভিন্ন চেক পেয়েন্টে তল্লাশি শুরু হয়। দুপুরের দিকে সন্দেহজনক একটি সাদা রঙের গাড়িকে দেখে বারামুলার সিংপোরা ক্রসিংয়ে, যৌথ চেকপোস্টে পতাকা দেখিয়ে থামতে বলা হয়।

গাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে দু’টি গ্রেনেড, একে-৪৭ এর ১০০ রাউন্ড গুলি, নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈবার দু’টি লেটার উদ্ধার করে যৌথ বাহিনী। গাড়িতে থাকা দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গাড়িটিও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, জেরায় ধৃতরা লস্করের সঙ্গে তাদের জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছে। এই দু-জনকে জেরা করে পুলিশ জানতে পারে, ধৃতরা লস্করের ওভার গ্রাউন্ড ওয়ার্কার। ধৃতদের বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট ধারায় বারামুলা থানায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।