ম্যাচের পর পাকিস্তানেরও মেন্টর ধোনি!

দুবাই : উৎসবের মেজাজে গোটা পাকিস্তান।

বাবর ব্রিগেডের নয়া ইতিহাসে বুঁদ ওয়াঘার ওপাড়। ম্যাচ শেষ হতে না হতেই প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের অভিনন্দন চলে এসেছে নায়কদের জন্য। বাবরদের ইমরান বলেছেন, তোমাদের জন্য গোটা দেশ গর্বিত। ম্যাচের আগেই উদ্দীপ্ত করেছিলেন দলকে। কী করা উচিত, সেই টিপসও দিয়েছিলেন।

- Advertisement -

দুবাইয়ে গ্যালারিতে আবার আবেগের ছবি। ছেলের সাফল্যে খুশিতে চোখের জল আটকাতে পারছিলেন না বাবরের বাবা। অধিনায়কের বাবাকে কাছে পেয়ে তাঁকে ঘিরেই গ্যালারিতে পাক সমর্থকদের উৎসব। তারপরই আবেগেপ্রবণ হয়ে পড়েন। ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওয় এক সাংবাদিক বলেন, বাবর আজমের বাবা ইনি। ৯ বছর আগে ওঁর সঙ্গে যখন দেখা হয়, তখন বাবর জাতীয় দলে ঢোকেনি। তখনই বলেছিলেন, একবার অভিষেক হতে দাও, তারপর গোটা মাঠ কাঁপাবে বাবর।

পাকিস্তানের বিজয়োৎসব, ভারতের হতাশার দিনের মাঝেও অন্যরকম আবহ তৈরি হল। মধ্যমণি স্বয়ং মহেন্দ্র সিং ধোনি। ম্যাচের পর মেন্টরের ভূমিকায়। তবে ভারতীয় দল নয় পাকিস্তানের! বিরাটদের সঙ্গে কুশল বিনিময়, মাঠে উৎসবের পর বাবর আজমরা সোজা মাহির ক্লাসে। বাধ্যছাত্রের মতো সবাই সেখানে শ্রোতা, বক্তা এমএস।

গ্যালারিতে যখন পাক-জয়ধ্বনি, তখন মাঠের এক ধারে ধোনির ক্লাস। তরুণ অধিনায়ক বাবর আজম, ইমাদ ওয়াসিম, শাহনওয়াজ দাহানি থেকে সিনিয়ার সদস্য শোয়েব মালিক- সবাই মনোযোগী ছাত্র। আইসিসি যে ভিডিও পোস্ট করেছে। সঙ্গে ক্যাপশন, যাবতীয় উদ্দীপনা, নাটকীয় উপাদানের বাইরে এটাই আসল গল্প ভারত-পাক ম্যাচের।

মূলত ব্যাটিং নিয়ে কিছু বোঝাচ্ছিলেন ধোনি। বাবরকে অভিনন্দন জানিয়ে হাতও মেলান। ক্যাপটেন কুলের সঙ্গে ছবিও তোলেন পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। কে জানে ফের কবে এভাবে হাতের কাছে মাহিকে পাওয়া যাবে? উৎসবের মেজাজেও যা হাতছাড়া করতে নারাজ বাবররা।