পদকের খোঁজে টোকিওয় শাটলার পলক

নয়াদিল্লি : জন্ম থেকেই তাঁর বাঁ হাতে সমস্যা রয়েছে। ফলে আশপাশের মানুষের থেকে সহানুভতির নজর পাওয়া নিত্যদিনের বিষয়।

তবে কয়েক বছর আগে এক শপিং মলে অপরিচিত এক ব্যক্তির মুখে হাত নিয়ে প্রশ্ন শুনে পৃথক কোনও অনুভতি হয়নি পলক কোহলির। কিন্তু ওই ব্যক্তি সহানুভতির আহা-উহু করেননি। বরং খোঁজ দিয়েছিলেন এক নতুন দুনিয়ার- প্যারা স্পোর্টসের। সেই দুনিয়ায় ঢুকেই বাঁচার নতুন পথ খুঁজে পেয়েছেন পলক। এদেশে তিনিই প্যারা-অলিম্পিকে সুযোপ পাওয়া কনিষ্ঠতম শাটলার। টোকিওয় পদক জয়ে দৌড়ে রয়েছেন এই শাটলার।

- Advertisement -

১৯ বছরের পলক জলন্ধরের বাসিন্দা। তবে বর্তমানে লক্ষনৌ শহরে জাতীয় কোচ গৌরব শর্মার অ্যাকাডেমিতে অনুশীলন করেন। টোকিওয় সিঙ্গলসের পাশাপাশি ডাবলস ও মিক্সড ডাবলসেও নামবেন। সিঙ্গলসের এসইউ৫ ক্যাটেগরিতের তাঁর বিশ্ব র‌্যাংকিং ১২, ডাবলসে ৫। জাপানের রাজধানীতে ডাবলসে তাঁর সঙ্গী পারুল পার্মার। মিক্সড ইভেন্টে নামবেন প্রমোদ ভগতের সঙ্গে। প্রমোদ (এসএল৩), তরুণ ঢিলোঁ (এসএল৪) বা বিশ্বের দুনম্বর কৃষ্ণ নাগরের (এসএইচ৬) পাশাপাশি নজরে থাকবেন পলকও।

প্যারা-স্পোর্টসের বিষয়ে জানার পর স্কুলে হ্যান্ডবল দলে যোগ দিতে চেয়েছিলেন পলক। কিন্তু এক শিক্ষক তাঁকে খেলার কথা না ভেবে পড়ায় মন দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। এমনকি খেলতে গেলে তাঁর ডানহাতও অকেজো হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন। সেই পরামর্শ কানে তোলেননি পলক। তাঁর কথায়, রোজ সকালে আমাদের সামনে দুটো সুযোগ থাকে। হয় আরও একটু ঘুমাও আর স্বপ্ন দেখ। নয়তো জেগে উঠে সেই স্বপ্নের পেছনে ছোট। কী করবে তা তোমার হাতে।

স্বপ্নের পেছনে ছুটে টোকিও পৌঁছে গিয়েছেন পলক। এবার সেখান থেকে পদক হাতে ফেরার অপেক্ষা।