সাগরদিঘির আদর্শ পথে দখলদারি, অবৈধ পার্কিং

107

প্রাণপ্রতিম পাল, কোচবিহার : নামেই আদর্শ পথ। অথচ আদর্শ পথের যেসব নিয়ম রয়েছে, সেগুলি ঠিকমতো মানা হচ্ছে না। সম্প্রতি ঢাকঢোল পিটিয়ে কোচবিহারের সাগরদিঘির চারধারের রাস্তাকে আদর্শ পথ হিসেবে ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। অথচ সাগরদিঘির পাড়ের আদর্শ পথে নিয়মকানুন মেনে চলার বালাই নেই। সাগরদিঘির পাড়ে যেখানে-সেখানে অবৈধ পার্কিং জোন তৈরি হয়েছে। কাছারি মোড় থেকে জেলা আঞ্চলিক পরিবহণ দপ্তরের সামনের ফুটপাথ দখল করে দোকানপাট বসছে। ফলে ওই এলাকার রাস্তা সংকীর্ণ হয়ে পড়েছে। সবমিলিয়ে আদর্শ পথের যে সমস্ত নিয়ম রয়েছে, তাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে যাতায়াত চলছে। ফলে সাগরদিঘির চারপাশের রাস্তাকে আদর্শ পথ ঘোষণা করার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বিষয়টি নিয়ে জেলা আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিক আশুতোষ রায় বলেন, আদর্শ পথের সমস্ত নিয়ম যাতে মানা হয়, সেই বিষয়ে পুলিশের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চলতি মাসের ৯ ফেব্রুয়ারি সাগরদিঘির চারপাশের রাস্তাকে আদর্শ পথ হিসেবে ঘোষণা করে তার উদ্বোধন করে জেলা প্রশাসন। এই উপলক্ষ্যে জেলা শাসকের কার্যালয়ে সামনে থেকে একটি মিছিল বের হয়ে সাগরদিঘির পাড় হয়ে জেলা আঞ্চলিক পরিবহণ দপ্তরের সামনে এসে শেষ হয়। সেখানে আদর্শ পথের উদ্বোধন হয়। জেলা শাসক পবন কাদিয়ান, পুলিশ সুপার কে কান্নান, জেলা আঞ্চলিক পরিবহণ আধিকারিক আশুতোষ রায় সহ অন্যরা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। সেদিন জানানো হয়েছিল, আদর্শ পথ হিসেবে ঘোষিত রাস্তায় ফুটপাথ দখলমুক্ত থাকবে। রাস্তাটি সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা হবে। যেখানে-সেখানে পার্কিং করা যাবে না। এই সমস্ত নিয়ম যে মানা হচ্ছে না সাগরদিঘির চারপাশের রাস্তা দেখলেই তা বোঝা যাবে। বিষয়টি নিয়ে শহরবাসীর ক্ষোভ বাড়ছে। কোচবিহারের বাসিন্দা রাজু রায় বলেন, সাগরদিঘির পাড়ের রাস্তাকে আদর্শ পথ হিসাবে ঘোষণা করার আগে প্রশাসনের আধিকারিকদের আগে প্রাথমিকস্তর থেকে সমীক্ষা করে নেওয়া উচিত ছিল। প্রশাসনের যে দূরদর্শিতার অভাব রয়েছে তা এখানে আদর্শ পথ ঘোষণার মধ্য দিয়ে বোঝা যাচ্ছে। কোচবিহারের বাসিন্দা কল্যাণ দাস বলেন, সাগরদিঘির চারধারে পার্কিং জোন তৈরি করা হয়েছে। আদর্শ পথে ফুটপাথ দখলমুক্ত থাকার কথা থাকলেও অফিস টাইমে সাগরদিঘির উত্তর পাড় দিয়ে চলাচল করা কঠিন হয়ে পড়ে। আদর্শ পথের যাবতীয় বিষয় যাতে মানুষ মেনে চলেন, সেজন্য প্রশাসনের তরফে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা দরকার। অন্যথায় আদর্শ পথ হিসাবে চিহ্নিত সাগরদিঘির চারধারের রাস্তা থেকে ওই তকমা তুলে দেওয়া উচিত।

- Advertisement -