কোচবিহার, ১০ মেঃ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দীর্ঘসময় ধরে কোনো চিকিৎসক না থাকায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগকে কেন্দ্র করে শুক্রবার উত্তেজনা ছড়াল কোচবিহার সরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে।

এদিন রাতে কোচবিহারের বাসিন্দা এক পড়ুয়া আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেই সময় সে বেঁচে ছিল বলে পরিবারের দাবি। কিন্তু হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আধ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে কোন চিকিৎসক না থাকার ফলে তার চিকিৎসা করা যায়নি বলে অভিযোগ। শেষ পর্যন্ত হাসপাতালে মারা যায় সে। এরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন পড়ুয়ার পরিবার-পরিজন ও এলাকার বাসিন্দারা। হাসপাতাল চত্বরে বিক্ষোভ দেখানো হয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছান হাসপাতালের অ্যাসিস্টেন্ট সুপার দিব্যেন্দু দাস। খবর পেয়ে কোতয়ালি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে।