শ্বেত বরফে জমেছে নায়াগ্রা জলপ্রপাত

132
ছবি: সংগৃহীত

নিউ ইয়র্ক: জীবনের অন্যতম চাহিদাসম্পন্ন জায়গার নাম নায়াগ্রা। এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর যে জীবনে নায়গ্রাতে যেতে চায় না! আর সেটাই স্বাভাবিক। এটি উত্তর আমেরিকার সর্ববৃহৎ জলপ্রপাত বলে নয়, এই জলপ্রপাতের অপরূপ সৌন্দর্য এক কথায় বর্ণনা করা যায় না!

সম্প্রতি উত্তর আমেরিকার তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নিচে নেমে গিয়েছে। বরফে জমে গিয়েছে বেশিরভাগ শহর। এর প্রভাব পড়েছে নায়াগ্রার উপরেও। এই জলপ্রপাতের জলও বেশ খানিকটা জমে গিয়েছে। যেভাবে তাপমাত্রা ক্রমাগত নেমেছে, তাতে গোটা জলপ্রপাতই জমে কুলফি হয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু সৌভাগ্যবশত এই জলপ্রপাতে বিপুল পরিমাণ জলরাশি থাকার দরুন সেটা প্রায় অসম্ভব একটি কাণ্ড। কিন্তু কিছুটা তরল আর কিছুটা জমে যাওয়া বরফ, এই দুইয়ের যুগলবন্দীতে নায়াগ্রা জলপ্রপাতের রূপ যেন আরও দ্বিগুণ হয়ে ধরা দিয়েছে।

- Advertisement -

আমেরিকাতে অবস্থিত হলেও নায়াগ্রার মূল অবস্থান হল নিউ ইয়র্ক শহর এবং কানাডার ওন্টারিও অঞ্চলের সীমান্তে। আসলে এটি তিনটি জলপ্রপাতের মিশ্র ধারা। যার মধ্যে সব চেয়ে বড় জলপ্রপাত বা হর্স শ্যু জলপ্রপাত কানাডা ও আমেরিকার সীমান্তে অবস্থিত। এর আরেক নাম কানাডা ফলস। অপর দু’টি জলপ্রপাত আমেরিকান জলপ্রপাত ও ব্রাইডাল ভেল আমেরিকাতেই অবস্থিত। এইভাবে অর্ধেক জমে যাওয়া নায়াগ্রার কাছে কোনও বড় ব্যাপার নয়। তবে ১৮৪৮ সালে প্রায় ৩০ ঘণ্টার জন্য এই জলপ্রপাত পুরোপুরি জমে গিয়েছিল।