স্ত্রীকে খুনের অভিযোগ, গ্রেপ্তার স্বামী

90

বর্ধমান: পরপর দুই কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ায় এক গৃহবধূকে খুনের অভিযোগ উঠল পূর্ব বর্ধমানের মেমারি থানার গন্ধর্বপুরে। ঘটনায় ইতিমধ্যে মৃতার স্বামী বিশ্বজিৎ সরকারকে গ্রেপ্তার করেছে মেমারি থানার পুলিশ। যদিও মৃতার শ্বশুরবাড়ির অন্যান্য সদস্যরা পলাতক। তাঁদের খোঁজে তল্লাশি জারি রয়েছে। অন্যদিকে, বুধবার ধৃত বিশ্বজিৎ সরকারকে বর্ধমান আদালতে পেশ করা হয়। তদন্তের স্বার্থে সিজেএম ধৃতকে ৫ দিন পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, কালনা থানার বেলকুলি গ্রামের বাসিন্দা শাশ্বতীর সঙ্গে ১৪ বছর আগে বিয়ে হয় বিশ্বজিৎ-এর। অভিযোগ, প্রথম কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর থেকেই শ্বশুরবাড়ির তরফে শাশ্বতীর ওপর উপর নির্যাতন শুরু হয়। দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর নির্যাতন বাড়তে থাকে। এবিষয়ে শাশ্বতীর পরিবারের লোকজন একাধিকবার আলোচনায় বসেছিল। যদিও তাতেও কোনও লাভ হয়নি। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার রাতে বিশ্বজিৎ স্ত্রীর মৃত্যু কথা জানায় শ্বশুরবাড়ির লোকেদের।

- Advertisement -

মৃতার পরিবারের দাবি, শাশ্বতীর কপালে গভীর ক্ষতচিহ্ন এবং গলায় কালশিটে দাগ ছিল। ঘটনায় খুনের অভিযোগ তুলে জামাই সহ শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের বিরুদ্ধে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয় মৃতার পরিবারের তরফে। অভিযোগের ভিত্তিতে বধূ নির্যাতন এবং পরিকল্পনামাফিক খুনের ধারায় মামলা রুজু করে মৃতার স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনায় তদন্ত চলছে।