চোলাই মদ-হাড়িয়ার বিরুদ্ধে পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে অভিযানে গ্রামের মহিলারা

294

গয়েরকাটা: নিষিদ্ধ চোলাই মদ ও হাড়িয়া বিক্রির বিরুদ্ধে বানারহাট থানার পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে অভিযানে নামলেন গ্রামের মহিলারা। সোমবার সাকোয়াঝোরা-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের আম্বাডিপা এলাকার ১৪/২১৭ নম্বর পার্টে এই অভিযান চলে।

অভিযোগ, একাধিকবার মানা করা সত্ত্বেও ওই এলাকার কিছু অসাধু মদ বিক্রতা নিজের ব্যবসার স্বার্থসিদ্ধির জন্য নিষিদ্ধ চোলাই মদ ও হাড়িয়া বিক্রি করে তাদের ব্যবসা রমরমিয়ে চালিয়ে যাচ্ছিল। দীর্ঘ লকডাউনে কাজ হারিয়েছেন ওই এলাকার অনেকেই। তার উপর বাড়িতে জমানো টাকা দিয়ে তাঁরা প্রায়ই মদ খাচ্ছেন বলে অভিযোগ। যা নিয়ে ওই এলাকায় বাড়িতে বাড়িতে প্রায়ই অশান্তি লেগেই থাকে বলে দাবি বাসিন্দাদের। পুলিশ প্রশাসনকে জানিয়েও বন্ধ হয়নি এই কারবার। যা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে এলাকাবাসীদের মধ্যে।

- Advertisement -

তাই এদিন সকাল ১১টা নাগাদ আম্বাডিপা আদিবাসী ইয়ং ক্লাবের উদ্যোগে এলাকার সমস্ত মহিলা সহ ওই এলাকার বেশ কিছু ব্যক্তি একত্রিত হয়ে পুলিশ প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে একটি মিছিল বের করেন। প্ল্যাকার্ড হাতে এদিন এলাকার মহিলারা মিছিলে শামিল হন। মিছিল করেই বেশ কয়েকটি বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান বিনোদ ওরাওঁ ও বানারহাট থানার পুলিশ আধিকারিক। এলাকার বিভিন্ন বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ হাড়িয়া ও চোলাই মদ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয় এক মহিলা কুসুম মাজি বলেন, ‘এলাকায় যাতে আর কেউ কোনও ভাবে চোলাই মদ ও হাড়িয়া বিক্রি করতে না পারে তার জন্যই আজকের এই অভিযান। এই সমস্ত মদ খেয়ে মানুষ মারা যাচ্ছেন। বাড়িতে স্বামীরা কাজ করে এসে টাকা না দিয়ে মদের দোকানে গিয়ে মদ খান। তাই আজকে আমরা সমস্ত মহিলারা মিলে একত্রিত হয়ে আন্দোলনে নেমেছি।’