পালিয়ে যাওয়া বছর ১৩-র নাবালিকাকে ঘরে ফেরাল পুলিশ

0
157
- Advertisement -

কালচিনি: অল্প বয়সেই প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে করে ঘর বাঁধার স্বপ্ন দেখেছিল বছর ১৩-র এক নাবালিকা। প্রেমিকের টানে বাড়ি থেকে প্রায় দেড়শো কিলোমিটার দূরে নিজের মামা বাড়িতে এসেছিল মেয়েটি। পরিকল্পনা মতো প্রেমিকের হাত ধরে বাড়ি থেকে পালিয়েও শেষ রক্ষা হল না। পথেই ওই যুগলকে ধরে ফেলল পুলিশ।

মেয়েটিকে উদ্ধার করে খোদ পুলিশ কর্মীদের চক্ষু চড়কগাছ। এত কম বয়সের একটি মেয়ে এমন কান্ড করে ফেলছে যা দেখে মেয়েটির পরিবারের লোকজনও স্তম্ভিত। মেয়ে পালিয়ে যাওয়ার কিছু সময়ের মধ্যেই কালচিনি থানার পুলিশের দ্বারস্থ হন মেয়েটির আত্মীয়রা। ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পুলিশি তৎপরতায় মেয়েকে ফিরে পান তার বাবা-মা। যদিও ঘটনায় কালচিনি থানায় মেয়েটির মা ছেলেটির বিরুদ্ধে মেয়েকে ফুসলিয়ে পালিয়ে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার দু’জনকেই আলিপুরদুয়ার মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কালচিনি থানার ওসি অনির্বান মজুমদার।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই কিশোরী শিলিগুড়ির শালুগাড়ার বাসিন্দা। অন্যদিকে, অভিযুক্ত যুবক কালচিনি থানার রাজাভাতখাওয়ার বাসিন্দা। কিশোরীর মামা বাড়িও রাজাভাতখাওয়ায়। মামা বাড়িতে আসা যাওয়ার সূত্রে ওই যুবকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ওই মেয়েটির। দু’দিন আগেই মামা বাড়িতে আসে মেয়েটি। মঙ্গলবার দুপুরে বাড়ি থেকে ওই যুবকের সঙ্গে মেয়েটি পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে বিভিন্ন সূত্রের মাধ্যমে কালচিনি থানার পুলিশ জানতে পারে ওই যুবক মেয়েটিকে নিয়ে কোচবিহার থেকে অন্যত্র পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে। এরপর কালচিনি থানার পুলিশ কোচবিহার গিয়ে কোতোয়ালি থানার পুলিশের সহযোগিতায় ওই নাবালিকা ও যুবককে আটক করে কালচিনিতে ফিরিয়ে নিয়ে আসে।

কালচিনি থানার পুলিশ জানিয়েছে, আদালতের অনুমতিক্রমে সিডাব্লিউসির মাধ্যমে নাবালিকাকে তার পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে। যদিও মেয়েটির মায়ের দাবি, তাঁদের মেয়ে নাবালিকা। ছেলেটি ফুসলিয়ে তাঁর মেয়েকে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছিল। পুলিশের ভূমিকার প্রশংসা করেন নাবালিকার মা।

- Advertisement -